Monday, May 27, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

এবার ইতালি যাত্রায় তীব্র শীতে মারা গেলো সাত বাংলাদেশি

লিবিয়া থেকে নৌকায় করে ভূমধ্যসাগরীয় দ্বীপ ল্যাম্পাডুসায় যাওয়ার পথে হাইপোথার্মিয়ায় আক্রান্ত হয়ে ৭ বাংলাদেশির মৃত্যু হয়েছে

আপডেট : ১৪ মার্চ ২০২২, ১২:৫০ পিএম

লিবিয়া থেকে অভিবাসী নৌকায় ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিয়ে ইতালিতে যাওয়ার পথে তীব্র শীতে হাইপোথার্মিয়ায় আক্রান্ত হয়ে ৭ বাংলাদেশির মৃত্যু হয়েছে। 

মঙ্গলবার (২৫ জানুয়ারি) ইতালির লাম্পেদুসা দ্বীপের মেয়র টোটো মার্টেলো বার্তা সংস্থা এএফপিকে বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, “২৮০ জন যাত্রী ছিল ওই নৌকায়। তবে, জীবিতদের মধ্যে কতজন বাংলাদেশি তা তাৎক্ষণিকভাবে নিশ্চিত হওয়া যায়নি।এদের মধ্যে তিনজন লোক ক্রসিংয়ের সময় এবং আরও চারজন হাইপোথার্মিয়ায় আক্রান্ত হয়ে মারা গিয়েছেন। নিহত সাতজনই বাংলাদেশি।“

মেডিটেরেনিয়ান হোপ মাইগ্রেশন প্রজেক্ট এক টুইটারে জানিয়েছে, ২৮০ জন যাত্রীর মধ্যে প্রায় সবাই বাংলাদেশ, মিশর, মালি এবং সুদানের, যাদের প্রায় সবাই হাইপোথার্মিয়ায় গুরুতর অবস্থায় ছিল।"

মার্টেলো আরও জানান, দুঃখের বিষয় হচ্ছে এতগুলো মৃত্যুর পরও ইতালি ও ইউরোপ এখনও নিঃশ্চুপ।

উল্লেখ্য, মানবদেহের তাপমাত্রা যখন ৩৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচে নেমে যায় তখন হাইপোথার্মিয়া ঘটে। 

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, করোনাভাইরাস পরীক্ষা করার পরে, বেঁচে থাকা ব্যক্তিদের স্বাস্থ্য কেন্দ্র এবং আফ্রিকার কাছাকাছি অবস্থিত ঘন বসতিপূর্ণ দ্বীপের একটি অভিবাসন কেন্দ্রে স্থানান্তর করা হয়েছে। কেন্দ্রটির ধারণক্ষমতা ২৫০ হলেও বর্তমানে ছয় শতাধিক লোকের বসবাস।

জানা গেছে, ২০২০ সালে সালে প্রায় ৩৪ হাজার অভিবাসী ইতালিতে গেলেও ২০২১ সালে সেই সংখ্যা প্রায় দ্বিগুণ হয়ে সাড়ে ৬৪ হাজারে পৌঁছেছে। অন্যান্য বছরগুলোতে শীতের সময়ে অভিবাসীদের সংখ্যা কম থাকলেও এ বছর শীতকে পরোয়া না করেই পারাপার হচ্ছে অভিবাসী নৌকা। তীব্র শীত এবং উত্তাল সমুদ্র সত্ত্বেও, এই মাসে এখন পর্যন্ত ১ হাজার ৭৫০ জনেরও বেশি লোক ইতালিতে এসেছে, যা গত বছরের একই সময় ছিল মাত্র ৩৭৯ জন। ফলে, ২০২১ সালের তুলনায় দ্বিগুণ অভিবাসী আসবে বলে ধারণা ইতালীয় কর্তৃপক্ষের।


About

Popular Links