Sunday, May 26, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

ইউক্রেনে প্রসূতি হাসপাতালে বোমা হামলা, শিশুসহ নারীর মৃত্যু

উক্রেনের বিরুদ্ধে রাশিয়ার চলমান ১৯ দিনের হামলার মধ্যে এটি ছিল সবচেয়ে নৃশংস মুহূর্তগুলোর একটি

আপডেট : ১৪ মার্চ ২০২২, ০৪:৫০ পিএম

ইউক্রেনের একটি প্রসূতি হাসপাতালে রাশিয়ার বোমা হামলার পর শিশুসহ এক গর্ভবতী নারীর মৃত্যু হয়েছে।  দ্য অ্যাসোসিয়েটেড প্রেসের বরাত দিয়ে এ খবর জানিয়েছে ইউএনবি।

বুধবার (৯ মার্চ) মারিউপোলের ওই হাসপাতালে হামলার পর এপি সাংবাদিকদের তোলা ভিডিও এবং ছবিতে ওই নারীকে রক্তাক্ত অবস্থায় দেখা গেছে। ইউক্রেনের বিরুদ্ধে রাশিয়ার চলমান ১৯ দিনের হামলার মধ্যে এটি ছিল সবচেয়ে নৃশংস মুহূর্তগুলোর একটি।

জানা গেছে, ওই নারীকে অন্য একটি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। চিকিত্সকরা তাকে বাঁচিয়ে রাখার জন্য চেষ্টা করেন। 

চিকিত্সকরা জানান, ওই নারী যখন বুঝতে পারেন তার সন্তানকে আর বাঁচানো সম্ভব না তখন তিনি বলতে থাকেন “এখন আমাকেও মেরে ফেলুন।”

শৈল্য চিকিত্সক তৈমুর মারিন জানান, ওই নারীর পেলভিস চূর্ণ-বিচূর্ণ ও নিতম্ব বিচ্ছিন্ন অবস্থায় ছিল। সিজারিয়ানের মাধ্যমে মৃত শিশুটিকে ডেলিভারি করার আধা ঘণ্টার মধ্যে ওই নারীও মারা যান।

রয়টার্সের প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, ওই নারীর স্বামী ও বাবা তার লাশ নিয়ে যায়। কিন্তু, বিমান হামলার পর বিশৃঙ্খলার মধ্যে চিকিৎসকদের আর তার নাম জানার মতো সময় ছিল না। 

এদিকে, রুশ কর্মকর্তারা দাবি করেছেন, ওই হাসপাতালটি ইউক্রেনীয় চরমপন্থীরা ঘাঁটি হিসেবে ব্যবহার করার জন্য দখল করেছিল এবং সেখানে কোনো রোগী বা চিকিত্সক ছিল না। 

জাতিসংঘের রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত এবং লন্ডনে রাশিয়ান দূতাবাসও ছবিগুলোকে “ভুয়া” হিসেবে অভিহিত করেছেন।

যুদ্ধের শুরু থেকেই অবরুদ্ধ মারিউপোল থেকে রিপোর্ট করা এপি’র সাংবাদিকরা জানিয়েছেন, তারা বেশ কিছু রক্তাক্ত, গর্ভবতী মায়েদের প্রসূতি ওয়ার্ড থেকে পালিয়ে যাওয়ার ভিডিও এবং ছবি সংগ্রহ করেছেন। এ সময় হাসপাতালের চিকিত্সকরা চিৎকার করছিল ও শিশুরা কাঁদছিল।

উল্লেখ্য, মারিউপোল শহরটিতে এক সপ্তাহেরও বেশি সময় ধরে খাদ্য সরবরাহ, জল, বিদ্যুৎ বা তাপ, জরুরি জেনারেটর থেকে বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ আছে।

হামলা থেকে বেঁচে ফেরা মানুষেরা জানান, বাইরের বিস্ফোরণে দেয়ালগুলো কেঁপে উঠেছিল। চিকিৎসক এবং নার্সরা তাদের কাজে মনোনিবেশ করলেও তাদের মানসিক অবস্থা বিশেষ ভালো ছিল না।

এর আগে, বিমান হামলার পরের দিন ব্লগার মারিয়ানা ভিশেগিরস্কায়া কন্যা সন্তানের জন্ম দিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আলোচনার সৃষ্টি করেছেন।

About

Popular Links