Friday, June 14, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

কয়েন জমিয়ে কিনলেন আড়াই লাখ টাকার মোটরসাইকেল!

জমানো কয়েনগুলো গুনতে ৯ জন মানুষের ১০ ঘণ্টারও বেশি সময় লেগেছে

আপডেট : ২৯ মার্চ ২০২২, ০৬:৩৯ পিএম

মাটির ব্যাংকে পয়সা জমিয়ে অনেকেই শখের জিনিস কেনেন। তাই বলে আড়াই লাখেরও বেশি টাকা জমিয়ে শখের মোটরসাইকেল কিনে ফেলার কথা সহজে শোনা যায় না।

তবে, এমনই এক কাণ্ড ঘটিয়েছেন ভারতের তামিলনাড়ুর এক তরুণ।

ভারতীয় গণমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়া জানায়, শনিবার (২৬ মার্চ) তামিলনাড়ুর ভি ভূপতি নামে ওই তরুণ তিন বছর ধরে জমানো কয়েন দিয়ে স্বপ্নের মোটরসাইকেল কিনেছেন। শুধু তাই নয় মোটরসাইকেলের ২ লাখ ৬০ হাজার রুপির পুরোটাই তিনি জমানো ১ রুপির কয়েন দিয়েই পরিশোধ করেছেন।

জানা গেছে, সালেমের একটি শোরুম থেকে “বাজাজ ডোমিনার ৪০০” মডেলের বাইকটি কেনার পর শোরুমের পাঁচজন সদস্য ও ভূপতির চার বন্ধু মিলে সবগুলো কয়েন গণনা করার জন্য ১০ ঘণ্টারও বেশি সময় ব্যয় করেন।

ভূপতি কয়েনগুলো একটি ভ্যানে করে শোরুমে নিয়ে এসেছিলেন এবং ঠেলাগাড়ি দিয়ে শোরুমে কয়েনগুলো নামানো হয়েছিল বলে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

ভারতীয় সংবাদ সংস্থা এএনআই এক টুইটার পোস্টে শেয়ার করেছে, ২৭ বছর বয়সী ভূপতির এই কাণ্ড ইতোমধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আলোড়ন সৃষ্টি করেছে।

টুইটে বলা হয়, শোরুম ম্যানেজার প্রথমে কয়েনের মাধ্যমে অর্থ গ্রহণ করতে অনিচ্ছুক ছিলেন। তবে তিনি কোনো গ্রাহককে হতাশ করতে চান না বলে পরে কয়েন গ্রহণ করেছিলেন।

“ব্যাংকে ১ লাখ রুপি গণনা করার জন্য কমিশন হিসেবে ১৪০ রুপি চার্জ করা হবে। আমরা যখন এক টাকার কয়েনে ২.৬ লাখ রুপি দেবো তখন তারা কীভাবে তা গ্রহণ করবে,” শোরুমের ব্যবস্থাপক মহাবিক্রান্তকে টাইমস অব ইন্ডিয়াকে বলেন।

“তবে, ভূপতির বাইক কেনার স্বপ্নের কথা বিবেচনা করে আমি অবশেষে মেনে নিয়েছি,” তিনি যোগ করেছেন।

“আমি বাইকের শোরুম ম্যানেজারকে আশ্বাস দিয়েছিলাম যে কোনো অসুবিধা হলে এক টাকার কয়েনকে কারেন্সি নোটে রূপান্তর করার দায়িত্ব নেব। চলমান ব্যাঙ্ক ধর্মঘটের কারণে, মনে হচ্ছে আমাকে সেগুলো নোটে রূপান্তর করতে হবে,” ভূপতি পিটিআই-কে বলেন৷

জানা গেছে, একদিনের মধ্যে তিনি এক টাকার কয়েনকে ৪০ হাজার রুপিতে  নোটে রূপান্তর করতে পেরেছেন।

About

Popular Links