Monday, May 27, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

বোরকার বিরুদ্ধে সরব সৌদি নারীরা

দেশটির নারীদের পাসপোর্টের আবেদন, বাইরে ভ্রমণ, বিয়ে, ব্যাংক একাউন্ট খোলা, ব্যবসা শুরু, কারাগার ত্যাগ প্রভৃতি বিষয়ে পরিবারের পুরুষদের অনুমতি নেওয়া বাধ্যতামূলক

আপডেট : ১৭ নভেম্বর ২০১৮, ০৬:৩৩ পিএম

বোরকার বিরুদ্ধে প্রতিবাদে মুখর হয়ে উঠেছেন সৌদি আরবের নারীরা। একটি ব্যতিক্রমধর্মী উপায়ে সৌদি নারীরা এই প্রতিবাদে সামিল হয়েছেন বলে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ানের একটি খবরে জানানো হয়েছে।

এই প্রতিবাদ কর্মসূচীর অংশ হিসেবে সৌদি নারীরা উল্টো করে বোরকা পরে ছবি তুলে সেই ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্ট করছেন।     

উল্লেখ্য, সৌদি আরবে নারীদের চলাচলের ক্ষেত্রে কঠোর বিধি নিষেধ আরোপিত। সেখানে নারীদের বাইরে বেরুতে হলে আপাদমস্তক ঢাকা কালো বোরকা (আবায়া) পরিধান করতে হয়। এছাড়াও দেশটির নারীদের পাসপোর্টের আবেদন, বাইরে ভ্রমণ, বিয়ে, ব্যাংক একাউন্ট খোলা, ব্যবসা শুরু, কারাগার ত্যাগ প্রভৃতি বিষয়ে পরিবারের পুরুষদের অনুমতি নেওয়া বাধ্যতামূলক। 

গত মার্চ মাসে সৌদি আরবের যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান মার্কিন একটি টেলিভিশনে  এ বিষয়ে বলেন, "এ সম্পর্কিত শরীয়া আইনটি খুবই পরিষ্কার ও স্পষ্ট। নারীরা পুরুষের মতোই মার্জিত ও সম্মানজনক পোশাক পরবেন। এর মানে এই নয় যে, নারীদের কালো রঙের আপাদমস্তক ঢাকা আবায়া (বোরকা) পরতে হবে। নারীরাই সিদ্ধান্ত নেবেন কোন ধরনের মার্জিত ও সম্মানজনক পোশাক তারা পরবেন"। তবে, তার এমন মন্তব্যের পরও নারীদের চলাচলে বিধিনিষেধে কোন শিথিলতা আসেনি।

এরই প্রেক্ষিতে ‘ইনসাইড-আউট আবায়া’ হ্যাশট্যাগ দিয়ে বেশ কয়েকজন সৌদি নারী সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছবি পোস্ট করছেন তাদের প্রতিবাদের অংশ হিসেবে।

প্রসঙ্গত, সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের প্রচেষ্টায় চলতি বছরে জুন মাস থেকে গাড়ি চালানোর অধিকার পেয়েছেন সৌদি আরবের নারীরা। এছাড়া, স্টেডিয়ামে বসে খেলা দেখারও অনুমতি পান সৌদি নারীরা।

About

Popular Links