Monday, May 20, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

প্রেমিকাকে খুশি করতে ৭ কোটি টাকা ‘চুরি’ ব্যাংক ম্যানেজারের!

ডেটিং অ্যাপে এক তরুণীর সঙ্গে পরিচয় হয় ভারতের এক ব্যাংক ম্যানেজারের। ধীরে ধীরে তাদের সম্পর্ক আরও গভীর হয়

আপডেট : ২৫ জুন ২০২২, ০৮:৫৮ পিএম

ডেটিং অ্যাপে এক তরুণীর সঙ্গে পরিচয় হয় ভারতের এক ব্যাংক ম্যানেজারের। ধীরে ধীরে তাদের সম্পর্ক আরও গভীর হয়। এক পর্যায়ে প্রেমিকার সামনে হিরো হওয়ার জন্য আর্থিক অনিয়মের মাধ্যমে ব্যাংক থেকে ৫ কোটি ৭০ লাখ রুপি (৬ কোটি ৭৭ লাখ টাকা প্রায়) তুলে নেন তিনি।

শুক্রবার (২৪ জুন) এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস। ঘটনাটি ঘটেছে গত ১৩ থেকে ১৯ মে’র মধ্যে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, অভিযুক্তের নাম হরি শংকর। তিনি বেঙ্গালুরুর হনুমন্তনগরের একটি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকের ম্যানেজার। আর এই ঘটনায় তার সঙ্গে জড়িত ব্যাংকের দুই সহকর্মী কৌশল্যা এবং মুনিরাজুও।

ব্যাংক থেকে অর্থ লোপাটের অভিযোগে হরি শংকরকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তাকে ১০ দিনের পুলিশি হেফাজতে রাখা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে তার দুই সহকর্মীকেও।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, জিজ্ঞাসাবাদের সময় শঙ্কর দাবি করেছেন যে, তিনি সাইবার অপরাধীদের কাছে টাকা হারিয়েছেন। তারা তাকে ডেটিং অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করার জন্য প্রলুব্ধ করে। পুলিশ তার দাবিগুলি যাচাই করে দেখছে বলেও জানানো হয়েছে।

পুলিশ জানিয়েছে, ওই ব্যাংকে ১ কোটি ৩০ লাখ রুপি ফিক্সড ডিপোজিট করেছিলেন এক নারী গ্রাহক, যা আমানত দেখিয়ে ৭৫ লাখ রুপি লোণ নেন ওই নারী। এজন্য প্রয়োজনীয় সব কাগজপত্রও ব্যাংকে জমা দিয়েছিলেন তিনি। ওই কাগজপত্র এবং ফিক্সড ডিপোজিটকে কাজে লাগিয়েই প্রতারণার ছক কষেন শংকর।

ওই নারী গ্রাহকের অর্থকে সিকিউরিটি হিসেবে রেখে একাধিক কিস্তির মাধ্যমে ৫ কোটি ৭০ লাখ রুপি তুলে নেন ওই ব্যাংক কর্মকর্তা। এই অর্থ পশ্চিমবঙ্গের বেশ কয়েকটি ব্যাংকের ২৮টি ব্যাংক অ্যাকাউন্টে এবং ১৩৬টি লেনদেনের মধ্যে কর্নাটকের দুটি ব্যাংক অ্যাকাউন্টে রেখে দেওয়া হয়।

অভিযোগ উঠেছে, শঙ্কর তার দুই সহকর্মীকে প্রতারণা করার জন্য অপব্যবহার করেছে। এবং তাদের জড়িত থাকার বিষয়টি এখনও প্রমাণিত হয়নি, তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

About

Popular Links