Saturday, May 25, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

আইইএলটিএসে ভালো করেও যুক্তরাষ্ট্রে গিয়ে ইংরেজি বলতে ব্যর্থ ভারতীয় শিক্ষার্থীরা

ইংরেজিতে দক্ষতা যাচাইয়ের পরীক্ষা আইইএলটিস-এ তাদের সবার স্কোরই ৬.৫ থেকে ৭ ছিল 

আপডেট : ০৪ আগস্ট ২০২২, ০২:৫০ পিএম

গত মার্চে কানাডা থেকে নৌকায় করে আকওয়েসনে সেন্ট রেজিস নদী দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশের সময় ৬ ভারতীয় শিক্ষার্থী ধরা পড়েন। তাদের প্রত্যেকের বয়স ১৯ থেকে ২১ বছর বছরের মধ্যে। তারা সবাই ইংরেজিতে দক্ষতা যাচাইয়ের পরীক্ষা আইইএলটিসে ভালো স্কোর করেছিলেন।

কিন্তু মার্কিন আদালতের সামনে তাদের কেউই স্বতঃস্ফূর্তভাবে ইংরেজিতে কথা বলতে পারেননি। ঘটনার পর মার্কিন কর্তৃপক্ষের অনুরোধে গুজরাটের পুলিশ ইতোমধ্যে বিষয়টি নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে।

বার্তা সংস্থা পিটিআইয়ের বরাত করে করা এক প্রতিবেদনে এ কথা জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমধ্যম এনডিটিভি।

মেহসানা পুলিশের স্পেশাল অপারেশন গ্রুপের (এসওজি) ইন্সপেক্টর ভাভেশ রাঠোড় বলেন, “কানাডা থেকে যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ করতে গিয়ে ধরা পড়ার পর যখন তাদের যুক্তরাষ্ট্রে একটি আদালতে হাজির করা হয়, তখন তারা বিচারকের প্রশ্নের উত্তর ইংরেজিতে দিতে ব্যর্থ হয়। আইএলটিস পরীক্ষায় সাড়ে ৬ থেকে ৭ স্কোর করার পরেও ইংরেজিতে তারা কথা বলতে না পারায় আদালত বিস্ময় প্রকাশ করেন। বাধ্য হয়ে মার্কিন আদালতকে একজন হিন্দি অনুবাদকের সাহায্য নিতে হয়েছিল।”

এ পুলিশ কর্মকর্তা জানান, ওই ছয় ভারতীয় ২০২১ সালের ২৫ সেপ্টেম্বর ভারতের দক্ষিণ গুজরাটের নভসারি শহরে আইইএলটিস পরীক্ষা দিয়েছিল। মার্কিন-কানাডা সীমান্তে ধরা পড়ার প্রায় দুই সপ্তাহ আগে গত ১৯ মার্চ স্টুডেন্ট ভিসায় তারা কানাডায় গিয়েছিল।

ভাভেশ রাঠোড় আরও জানান, যেসব ব্যাঙ্কোয়েট হলে আইএলটিস পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছিল, সেখানকার সিসিটিভি ক্যামেরা পরীক্ষা চলাকালে বন্ধ করে দেওয়া হয়। এ কারণে তদন্তের অংশ হিসেবে পরীক্ষা পরিচালনার জন্য অনুমোদন পাওয়া এজেন্সির মালিকদের পুলিশের কাছে হাজিরা দিতে বলা হয়েছে।

সামজিক যোগাযোগমাধ্যমে ঘটনাটি ছড়িয়ে পড়ার পর অনেকেই হতবাক হয়েছেন।

এক ব্যবহারকারী বলেন, “জাল আইইএলটিএস দিয়ে তারা হয়ত যুক্তরাষ্ট্রের নিউ জার্সিতে পৌঁছাবে। কিন্তু একবার ধরা পড়লে সেটি সব ভারতীয় শিক্ষার্থীদের ক্যারিয়ার তৈরির প্রচেষ্টায় বাজে প্রভাব ফেলবে।”

About

Popular Links