Monday, May 20, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

পাকিস্তান ও মিশরের লেখকদের লেখা বাদ দিল আলীগড় বিশ্ববিদ্যালয়

আলীগড় মুসলিম ইউনিভার্সিটির ইন্দো-পাক লেখক আবু আল-আ'লা আল-মওদুদি এবং মিশরীয় লেখক সাইয়েদ কুতুবের লেখা বই পড়ানো হতো

আপডেট : ০৪ আগস্ট ২০২২, ১০:১৭ পিএম

পাঠ্যক্রম থেকে পাকিস্তানি ও মিশরীয় লেখকদের লেখা বাদ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারতের আলীগড় মুসলিম ইউনিভার্সিটি।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের ছিল বিএ এবং এমএ ক্লাসের শিক্ষার্থীদের ইন্দো-পাক লেখক আবু আল-আ'লা আল-মওদুদি এবং মিশরীয় লেখক সাইয়েদ কুতুবের লেখা বই পড়ানো হতো।

সম্প্রতি দেশটির সমাজকর্মী ও শিক্ষাবিদ মধু কিশওয়ারসহ বেশ কয়েকজন শিক্ষাবিদ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে পাঠানো এক চিঠিতে এই লেখকদের বইগুলো শিক্ষার্থীদের না পড়ানোর আহ্বান জানান।

ওই চিঠির পরিপ্রেক্ষিতেই বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা কমিটি এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে বিশ্ববিদ্যালয়ের জ্যেষ্ঠ এক কর্মচারী ইন্ডিয়া টুডেকে জানিয়েছেন।

চিঠিতে আলীগড় ছাড়াও জামিয়া মিলিয়া ইসলামিয়া ও হামদর্দ বিশ্ববিদ্যালয়সহ অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতেও এই বইগুলো পড়ানোর কথা উল্লেখ করা হয়।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের প্রধান অধ্যাপক মুহাম্মদ ইসমাইল বলেন, “ম্যানেজমেন্ট বোর্ড পাকিস্তানি লেখকদের লেখা সব বই পাঠ্যক্রম থেকে বাদ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।এই বইগুলো দীর্ঘদিন ধরে পড়ানো হয়ে আসছে এবং সেখানে বিতর্কিত কোনো বিষয়ই নেই।”

১৮৭৫ সালে ভারতের উত্তর প্রদেশের আলীগড়ে স্যার সৈয়দ আহমদ খানের উদ্যোগে মোহামেডান অ্যাংলো-ওরিয়েন্টাল কলেজ হিসেবে খ্যাতনামা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানটির যাত্রা শুরু।

About

Popular Links