Sunday, May 19, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

পর্যটককে আক্রমণ করায় শ্বেত ভালুককে হত্যা

এক পরিসংখ্যান অনুযায়ী, ২০০৯ থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত ১৪টি মেরু ভালুককে গুলি করা হয় বলে জানিয়েছে নরওয়ের সম্প্রচার মাধ্যম এনআরকে

আপডেট : ০৯ আগস্ট ২০২২, ০৫:৪৩ পিএম

উত্তর নরওয়ের স্ভেলবার্ড দ্বীপপুঞ্জে ফরাসি পর্যটককে আক্রমণ করা একটি শ্বেত ভালুককে মেরে ফেলেছে কর্তৃপক্ষ। ভালুকের আক্রমণে ভুক্তভোগীর হাত ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

সোমবার (৮ আগস্ট) নরওয়ের প্রত্যন্ত স্ভালবার্ড দ্বীপপুঞ্জের একটি ক্যাম্পিং সাইটে ভালুকের আক্রমণে আহত হন এক পর্যটক নারী। স্থানীয় প্রশাসন জানিয়েছে তার অবস্থা আশঙ্কাজনক নয়। তবে পরবর্তীতে সেই ভালুকটিকে তারা মেরে ফেলেছে।

স্ভেলবার্ডের মধ্যভাগে স্ভেসলেট্টা নামের একটি জায়গায় ২৫ জনের একটি দলের সঙ্গে ছিলেন ঐ নারী। উত্তর নরওয়ের মূল ভূখণ্ড থেকে স্থানটির দূরত্ব প্রায় ৮০০ কিলোমিটার।

পর্যটককে আক্রমণের খবর ছড়িয়ে পড়লে কর্তৃপক্ষ ঘটনাস্থলে হেলিকপ্টার পাঠায়। এসময় ভয়ে দিগ্বিদিক ছুটতে থাকা ভালুকটিকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়া হয়। পরে আহত পর্যটককে হেলিকপ্টারে করে লঙ্গিয়ারবুয়েন হাসপাতালে পাঠানো হয়।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, ঐ নারীর বয়স ৪০ এবং তিনি সামান্য আহত বলে জানিয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

এদিকে গুলিতে ভালুকটি গুরুতরভাবে আহত হয়। পেশাদারদের মাধ্যমে পরীক্ষার পর সেটিকে ব্যথা না দিয়ে মেরে ফেলা হয় বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

এক পরিসংখ্যান অনুযায়ী, ২০০৯ থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত ১৪টি মেরু ভালুককে গুলি করা হয় বলে জানিয়েছে নরওয়ের সম্প্রচার মাধ্যম এনআরকে। আর্কটিক অঞ্চলে ২০ হাজার থেকে ২৫ হাজার মেরু ভালুকের বসবাস।

এই ভালুকদের আক্রমণে বিভিন্ন সময়ে মানুষের মৃত্যু হয়েছে। বিশেষ করে খাদ্যাভাবে অনেক সময় পর্যটকদের শিকারে পরিণত করে তারা। ২০১৫ সালে স্ভালবার্ডে এক চেক পর্যটককে তার তাঁবু থেকে টেনে নিয়ে যায় একটি ভালুক। পরে গুলি করে সেটিকে তাড়ানো হয়। কর্তৃপক্ষ ভালুকটিকে চিহ্নিত করে মেরে ফেলে।

About

Popular Links