Monday, May 27, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

‘মদ পান করতে’ ত্রিপুরায় গিয়ে বাংলাদেশি তরুণ গ্রেপ্তার

সীমান্তের ওপারে একটি পুকুরের পাড়ে বসে মদপান করছিলেন তারা। এ সময় বিএসএফ তাদের আটক করে

আপডেট : ১৯ অক্টোবর ২০২২, ০৬:১৭ পিএম

বন্ধুর ডাকে সাড়া দিয়ে ভারতের ত্রিপুরায় গিয়েছিলেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাসিন্দা অন্তর চন্দ্র সরকার। এ যাওয়াই কাল হলো তার। ভিসা-পাসপোর্ট ছাড়া ভারতে গিয়ে বন্ধুর সঙ্গে সীমান্ত লাগোয়া একটি পুকুর পাড়ে বসে মদ পান করছিলেন।

অন্তর এখন ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের কারাগারে রয়েছেন বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে বিবিসি।

ত্রিপুরার সিপাহীজলা জেলা পুলিশ জানায়, তারা বাংলাদেশ সীমান্ত সংলগ্ন মধুপুর থানা এলাকা থেকে অন্তর চন্দ্র সরকার নামে এক বাংলাদেশি নাগরিককে গ্রেপ্তার করেছে। তিনি বেআইনিভাবে ভারতে প্রবেশ করেন বলে অভিযোগ।

একজনের বৈধ ভারতীয় ভিসা ছিল

ত্রিপুরার কসবা কালীতলা এলাকা থেকে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ) প্রাথমিকভাবে দুই বাংলাদেশি নাগরিককে আটক করে। তবে তপন চন্দ্র সরকার নামের একজন বৈধ ভারতীয় ভিসা দেখাতে পারায় তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

কিন্তু দ্বিতীয়জন অর্থাৎ অন্তর চন্দ্র সরকারকে পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়।

মধুপুর থানার অফিসার ইনচার্জ বিভাস দাস বলেন, “গত রবিবার বিএসএফ ওই দুই বাংলাদেশি নাগরিককে কসবা কালীতলা থেকে আটক করে। তবে তপন চন্দ্র সরকার দুর্গাপুজোর সময়ে বৈধ ভিসা নিয়েই ভারতে এসেছিলেন তার আত্মীয়ের বাড়িতে।”

‘বন্ধুর কথা মনে পড়ে’

বেশ কিছুদিন ভারতে ঘোরাঘুরি করার পরে তার মনে পড়ে যায় বন্ধু অন্তরের কথা।

‘‘তপন চন্দ্র বাংলাদেশে তার বন্ধুকে ফোন করে বলে ভারতে চলে আসতে। উদ্দেশ্য দু’জনে একসঙ্গে মদের পার্টি করা। বেশ কিছুদিন ত্রিপুরায় ঘোরাঘুরি করায় এলাকাটা তার মোটামুটি চেনা হয়ে যায়। তাই কোন এলাকা দিয়ে সহজে সীমান্ত পেরনো যায়, সেটা আন্দাজ করেই বন্ধুকে ডেকে পাঠায়,’’ বলেন পুলিশ কর্মকর্তা বিভাস দাস।

তিনি জানান, কসবা কালীতলা এলাকায় সীমান্তে কাঁটাতারের বেড়া আছে, তবে ওই অঞ্চলে চোরাচালানের রুটও আছে। কিছু জায়গায় বেড়া কেটে ফেলেছে চোরাচালানকারীরা।

পুকুর পাড়ে মদের আসর

‘‘এমনই একটা জায়গা দিয়ে বেড়া পেরিয়ে অন্তর চন্দ্র সরকার ভারতে যান। তারা একটা পুকুরপাড়ে বসে মদ্যপান করছিলেন। তখন বিএসএফের প্রহরীরা তাদের আটক করে। একজনকে ছেড়ে দেওয়া হয়। তবে অন্তর চন্দ্র সরকারকে আদালত থেকে জেল হেফাজতে পাঠানো হয়েছে,’’ বলেন বিভাস দাস।

তাদের কাছ থেকে মদের বোতল, মদ্যপানের কিছু আনুষঙ্গিক উপকরণ, বিড়ির প্যাকেট, কিছু বাংলাদেশি আর ভারতীয় মুদ্রা এবং একটি মালয়েশিয়ার মুদ্রা উদ্ধার করা হয়েছে।

About

Popular Links