Friday, May 24, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

সেনাবাহিনীর সংশ্লিষ্টতার অভিযোগে মিয়ানমারের শতাধিক ফেসবুক অ্যাকাউন্ট বন্ধ

এর আগে গত আগস্ট ও অক্টোবরেও রোহিঙ্গাবিরোধী বিদ্বেষ ছড়ানোর দায়ে অনেক অ্যাকাউন্ট ও পেজ ডিলিট করে দেওয়া হয়

আপডেট : ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮, ১২:৪৬ পিএম

মিয়ানমারের শতাধিক অ্যাকাউন্ট, পেজ ও গ্রুপ বন্ধ করে দিয়েছে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ। এসব অ্যাকাউন্ট ও পেজের সঙ্গে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর গোপন সংশ্লিষ্টতা রয়েছে, এমন দাবি ফেসবুকের। বুধবার এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে রয়টার্স।

বুধবার ফেসবুক জানায়, তারা মিয়ানমারে ৪২৫টি পেজ, ১৭টি গ্রুপ, ১৩৫টি অ্যাকাউন্ট এবং ১৫টি ইন্সটাগ্রাম অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। এই প্ল্যাটফর্মগুলো ছিল দৃশ্যত খবর, বিনোদন, রূপচর্চা ও লাইফস্টাইলভিত্তিক। তবে বাস্তবে এসব পেজের সঙ্গে সেনাবাহিনীর যোগসাজশ রয়েছে অথবা ইতোপূর্বে বন্ধ করে দেওয়া কোনও পেজের নতুন সংস্করণ।

মিয়ানমারে ফেসবুকের এটি এ ধরনের তৃতীয় উদ্যোগ। এর আগে গত আগস্ট ও অক্টোবরেও রোহিঙ্গাবিরোধী বিদ্বেষ ছড়ানোর দায়ে অনেক অ্যাকাউন্ট ও পেজ ডিলিট করে দেওয়া হয়।

এ বিষয়ে জানতে মিয়ানমার সরকারের মুখপাত্র জ হেতায়কে ফোন দেওয়া হলে তিনি ফোন ধরেন নি বলে জানায় রয়টার্স।

মিয়ানমারের সবচেয়ে জনপ্রিয় ও প্রভাবশালী সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুক। দেশটিতে রোহিঙ্গা গণহত্যায়ও ফেসবুক ব্যবহার করে রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে সাধারণ বৌদ্ধদের উসকানি দেওয়া হয়েছিল। এ ধরনের উসকানি নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থতার জন্য তখন ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েছিল প্রতিষ্ঠানটি। ফেসবুককে জাতিগত নিধনযজ্ঞের হাতিয়ারে পরিণত করা হয়েছে এবং প্রতিষ্ঠানটি তা ঠেকাতে ব্যর্থ হয়েছে; এমন সমালোচনার মুখে গত এপ্রিলে রোহিঙ্গাদের প্রতি বিদ্বেষপ্রসূত বক্তব্য নিয়ন্ত্রণের অঙ্গীকার করেছেন সোশ্যাল মিডিয়াটির সহপ্রতিষ্ঠাতা মার্ক জাকারবার্গ। এ লক্ষ্যে বার্মিজ ভাষায় কনটেন্ট পর্যালোচনায় সক্ষম অধিক সংখ্যক ব্যক্তিদের নিয়োগের প্রতিশ্রুতি দেন তিনি। একইসঙ্গে ঘৃণা ছড়ানো সুনির্দিষ্ট ব্যক্তিদের শনাক্ত করা এবং তাদের ‘ব্যান’ করতে নাগরিক সমাজের সঙ্গে কাজ করার কথাও জানিয়েছেন জাকারবার্গ।


About

Popular Links