Friday, June 21, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

ভারতের বন্দরে নষ্ট হওয়ার ঝুঁকিতে ১৭ লাখ টন গম

 নিষেধাজ্ঞার পর এখন পর্যন্ত মাত্র ৪ লাখ ৬৯ হাজার ২০২ টন গম রপ্তানি করেছে ভারত

আপডেট : ০৪ জুন ২০২২, ০৭:৫৯ পিএম

গম রপ্তানিতে লাগাম টেনেছে ভারত। নিষেধাজ্ঞার পর এখন পর্যন্ত মাত্র ৪ লাখ ৬৯ হাজার ২০২ টন গম রপ্তানি করেছে দেশটি। এখনও বিভিন্ন বন্দরে অন্তত ১৭ লাখ টন গম পড়ে আছে। বর্ষা শুরু হওয়ায় এসব গম নষ্ট হওয়ার ঝুঁকিতে রয়েছে।

শনিবার (৪ জুন) ভারতীয় সরকার ও শিল্প কর্মকর্তাদের বরাতে বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

দেশটির একজন ঊর্ধ্বতন সরকারি কর্মকর্তা রয়টার্সকে জানিয়েছেন, নিষেধাজ্ঞা ঘোষণার পর এখন পর্যন্ত ৪ লাখ ৬৯ হাজার ২০২ টন গম রপ্তানি হয়েছে। এসব গমের বেশির ভাগ রপ্তানি হয়েছে মূলত বাংলাদেশ, ফিলিপাইন, তানজানিয়া ও মালয়েশিয়ায়। নিষেধাজ্ঞার পর ভারত থেকে মোট গম রপ্তানির হিসাবও তিনিই দিয়েছেন।

তিনি বলেন, “এপ্রিলে গম রপ্তানির রেকর্ড করেছিল ভারত। ওই মাসে ভারত থেকে মোট ১৪ লাখ ৬০ হাজার টন গম রপ্তানি হয়েছিল। কিন্তু নিষেধাজ্ঞা দেওয়া পর গত মে মাসে ভারতের গম রপ্তানি কমেছে। এ মাসে ভারত মোট ১১ লাখ ৩০ হাজার টন গম রপ্তানি করেছে।”

বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহৎ গম উৎপাদনকারী দেশ ভারত। তীব্র দাবদাহের কারণে দেশটিতে এবার গমের উৎপাদন কম হওয়ায় স্থানীয় বাজারে গমের দাম রেকর্ড পর্যায়ে পৌঁছেছে। পরিস্থিতি সামাল দিতে গত ১৪ মে গম রপ্তানিতে সাধারণ একটি নিষেধাজ্ঞা দেয় ভারত। তবে ইতোমধ্যে গম রপ্তানির জন্য যাদের ঋণপত্র দিয়ে দেওয়া হয়েছে, সেসব ক্ষেত্রে গম রপ্তানি করার সুযোগ দেওয়া হয়। এ ছাড়া যেসব দেশ খাদ্য নিরাপত্তার কথা জানিয়ে গম সরবরাহের অনুরোধ করে, তারাও এই নিষেধাজ্ঞার আওতাভুক্ত থাকে।

একটি বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানের তিনজন ডিলার রয়টার্সকে বলেছেন, কিছু গম গন্তব্যে পাঠানো হলেও এখনো বিভিন্ন বন্দরে ১৭ লাখ টন গম আটকা পড়েছে আছে। 

নিষেধাজ্ঞার আগে রপ্তানিকারকেরা অস্বাভাবিকভাবে বন্দরে বিপুল পরিমাণ গম স্থানান্তরিত করে মজুত করে রেখেছিল। ফসল ভালো হবে এমন আশা থেকে ও ইউক্রেনে যুদ্ধের কারণে কৃষ্ণসাগর হয়ে যে গম সরবরাহব্যবস্থা, তা অচল হয়ে যাওয়ায় সেই জায়গা দখল করতে সরকারও রপ্তানিকারকদের উৎসাহিত করছিল। এ ছাড়া রপ্তানিকারকেরা আশায় ছিলেন, গত বছর ৭২ লাখ টন গম রপ্তানি হলেও সরকার এবার ৮০ লাখ থেকে ১ কোটি টন গম রপ্তানির অনুমোদন দেবে। কিন্তু হঠাৎ করে সরকার গম রপ্তানির ওপর নিষেধাজ্ঞা দেয়। এতে এসব গম এখন বন্দরে আটকা পড়ে রয়েছে। বর্ষায় এখন সেসব গম নষ্ট হওয়ার ঝুঁকিতে রয়েছে।

About

Popular Links