Thursday, May 23, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

আফগানিস্তান-পাকিস্তানের প্রধান সীমান্ত ক্রসিং বন্ধ, গোলাগুলির শব্দ

আফগানিস্তানের ক্ষমতাসীন তালেবান সরকারের সঙ্গে পাকিস্তানের সম্পর্ক দ্রুত অবনতি হওয়ায় দুই দেশের প্রধান সীমান্ত ক্রসিং তোরখাম স্থল বন্দর বন্ধ রাখা হয়েছে

আপডেট : ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ০৪:২১ পিএম

আফগানিস্তানের ক্ষমতাসীন তালেবান সরকারের সঙ্গে পাকিস্তানের সম্পর্ক দ্রুত অবনতি হওয়ায় দুই দেশের প্রধান সীমান্ত ক্রসিং বন্ধ রাখা হয়েছে।

রবিবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যার দিকে খাইবার গিরিপথের কাছে তোরখাম সীমান্ত ক্রসিং বন্ধ করে দেওয়া হয় বলে জানিয়েছেন উভয়পক্ষের কর্মকর্তারা। দুই দেশের পণ্য ও পর্যটকদের প্রধান ট্রানজিট এই তোরখাম স্থল বন্দর।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, সীমান্তের ওই ট্র্যানজিট পয়েন্ট থেকে গুলির শব্দ শোনা গেছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। তবে পাকিস্তান না আফগানিস্তান এই ক্রসিং বন্ধ করে দিয়েছে, তা তাৎক্ষণিকভাবে বোঝা যায়নি।

আফগানিস্তানের নানগারহার প্রদেশ পুলিশের মুখপাত্র রয়টার্সকে বলেন, “সীমান্ত বন্ধ। আমরা পরে বিস্তারিত জানাবো।”

ওই অঞ্চলে দায়িত্বরত পাকিস্তানের নিরাপত্তা বাহিনীর দুই কর্মকর্তা জানিয়েছেন, সীমান্ত বন্ধ আছে। দুই পক্ষের মধ্যে কিছু গুলি বিনিময়ও হয়েছে। এ বিষয়ে পাকিস্তান সামরিক বাহিনী, পুলিশ ও সরকারের মুখপাত্রদের সঙ্গে তাৎক্ষণিকভাবে যোগাযোগ করতে পারেনি রয়টার্স। 

পাকিস্তান ও আফগানিস্তানের মধ্যে ২৬০০ কিলোমিটার সীমান্ত আছে। এই সীমান্ত নিয়ে বিতর্ক কয়েক দশক ধরেই চলছে। দুই প্রতিবেশী দেশের মধ্যে এ নিয়ে বিরোধ প্রায়ই প্রকাশ্যে দেখো গেছে।

পাকিস্তানের ল্যান্ডি কোটালের বাসিন্দা মোহাম্মদ আলী শিনওয়ারি বলেন, “রবিবার সন্ধ্যা থেকে সীমান্তটি বন্ধ আছে এবং সোমবার ভোরে গোলাগুলি হয়েছে। ভোরে গোলাগুলির শব্দ শুনতে পাই আমরা। দুই দেশের সেনারা লড়াইয়ে জড়িয়ে পড়েছে ভেবে আমরা উদ্বিগ্ন হয়ে পড়ি।”

দুই দশক ধরে আফগানিস্তানে যুক্তরাষ্ট্র সমর্থিত সরকার থাকার সময় থেকে শুরু করে ২০২১ সালে তালেবান ক্ষমতা নেওয়ার পরও সীমান্তে দুই প্রতিবেশীর সংঘাত লেগেই আছে।

About

Popular Links