Tuesday, May 21, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

রিজার্ভ সংকটে হজযাত্রী অর্ধেক কমানোর সিদ্ধান্ত পাকিস্তানের

এ বছর পাকিস্তানকে ১ লাখ ৭৯ হাজার ২১০ জনকে হজ কোটা দিয়েছে সৌদি আরব। বৈদেশিক মুদ্রার ঘাটতির কারণে বিদেশে বসবাসরত পাকিস্তানিকে হজের অর্ধেক কোটা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে শাহবাজ শরিফের সরকার 

আপডেট : ০৬ মার্চ ২০২৩, ০৮:৪০ পিএম

বৈদেশিক মুদ্রার ঘাটতির কারণে বিদেশে বসবাসরত প্রায় ৯০ হাজার পাকিস্তানিকে হজের কোটা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে দেশটির সরকার। বিদেশে অবস্থানরত পাকিস্তানিরা এই ৯০ হাজার কোটা সুযোগ পাবেন। তার মানে মোট পাকিস্তানি হজযাত্রীর ৯০ হাজার সরাসরি পাকিস্তান থেকে হজে যেতে পারবেন না।

রবিবার (৫ মার্চ) পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যম এক্সপ্রেস ট্রিবিউনের খবরে বলা হয়,  পাকিস্তান থেকে অর্থ বাইরে যাওয়া ঠেকাতে এ উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে সরকারের সংশ্লিষ্ট মহল। তারা বলছে, এ উদ্যোগের ফলে প্রায় ৪০ কোটি ডলার (৪০০ মিলিয়ন ডলার) দেশের বাইরে যাওয়া বন্ধ করা যাবে।

ভয়াবহ অর্থনৈতিক সংকটে পড়েছে পাকিস্তান। এ  পরিস্থিতিতে নানা ধরনের পদক্ষেপ নিয়ে সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করছে রাজনৈতিকভাবেও অস্থিরতায় থাকা দেশটি।

সম্প্রতি পাকিস্তানের অর্থমন্ত্রী ইসহাক দার ও ধর্মবিষয়ক মন্ত্রী মুফতি আবদুল শাকুরের মধ্যে এক বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয় যে কোটার অর্ধেক বা ৮৯ হাজার ৬০৫ অনাবাসী পাকিস্তানিদের হজের জন্য সুযোগ দেওয়া হবে। এ উদ্যোগের ফলে অনাবাসী পাকিস্তানিরা হয় নিজেরাই কোটা নিতে পারেন বা পাকিস্তান থেকে কাউকে পৃষ্ঠপোষকতা করতে পারেন।

বৈঠকে এ সিদ্ধান্তের বিষয়টি এখন অনুমোদনের জন্য সরকারের কাছে (ফেডারেল ক্যাবিনেট) পাঠানো হবে। সেখানেই এ ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত গৃহীত হবে। বৈঠকের পর ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সহকারী মিডিয়া ডিরেক্টর উমর বাট বলেন, বৈদেশিক মুদ্রাসংক্রান্ত সমস্যার কারণে পাকিস্তানের হজ কোটার অর্ধেক প্রবাসী পাকিস্তানিদের জন্য বরাদ্দ করার প্রস্তাব করা হয়েছে।

পাকিস্তানে এ বছর ব্যক্তিপ্রতি হজ খরচ ১.২ মিলিয়ন থেকে ১.৩ মিলিয়ন রুপি পর্যন্ত নির্ধারণ করা হয়েছে। এ বছর পাকিস্তানকে ১ লাখ ৭৯ হাজার ২১০ জনকে হজ কোটা দিয়েছে সৌদি আরব। তবে তীব্র অর্থসংকটের কারণে এত মানুষকে হজের অনুমতি দিতে চায় না শাহবাজ শরিফের সরকার।

About

Popular Links