Wednesday, May 29, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

চালকের আসনে সৌদি নারীরা

নিষেধাজ্ঞা অবসানের ফলে, অসংখ্য সৌদি নারীকে এখন থেকে পুরুষ আত্নীয় বা পেশাদার চালকের উপর নির্ভর করতে হবে না।

আপডেট : ২৪ জুন ২০১৮, ০৬:৩১ পিএম

রবিবার (২৪ জুন), নারীদের গাড়ি চালানো সম্পর্কিত নিষেধাজ্ঞা তুলে নিয়েছে সৌদি আরব। নিষেধাজ্ঞা অবসানে, দেশটির রাস্তায় গাড়ি চালিয়ে আনন্দ প্রকাশ করেছেন অসংখ্য সৌদি নারী। ঐতিহাসিক দিনটি উদযাপনে অংশ নিয়েছিলেন সৌদি রাজপরিবারের সদস্যরাও।  

বার্তা সংস্থা এএফপি এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার পেছনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন, সৌদি ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমান। যদিও বেশ আগে থেকেই, এ নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার দাবী জানিয়ে আসছিলেন সৌদি নারী অ্যাক্টিভিস্টরা । 

মধ্যরাতে নিষেধাজ্ঞাটি উঠে যাওয়ার পর, রাজধানী রিয়াদ ও অন্যান্য বেশ কয়েকটি শহর থেকে গাড়ি নিয়ে রাস্তায় বের হন নারীরা। সৌদি যুবরাজ আল-ওয়ালিদ বিন তালাল-এর মেয়ে ‘রিম’ নিজেও এ উদযাপনে অংশ নেন বলেই জানিয়েছে বার্তা সংস্থা এএফপি।

নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া প্রসঙ্গে টকশো উপস্থাপিকা ও লেখিকা, সামার অ্যালমগ্রেইন বলেন, “এই দিনটির জন্য অনেক দিন থেকেই আশাবাদী ছিলাম। কিন্তু এত দ্রুত, হঠাৎ করেই যে এটি হবে তা কল্পনা করতে পারিনি।” 

এই নিষেধাজ্ঞা অবসানের ফলে, অসংখ্য সৌদি নারীকে এখন থেকে পুরুষ আত্নীয় বা পেশাদার চালকের উপর নির্ভর করতে হবে না। এ প্রসঙ্গে সৌদি যুবরাজ আল-ওয়ালিদ বিন তালাল বলেন, “এটি অনেক বড় একটি অর্জন, নারীরা এখন স্বাধীনতা ফিরে পেয়েছে।” 

অন্যদিকে, ২০২০ সাল নাগাদ প্রায় ৩০ লাখ সৌদি নারী লাইসেন্স পেতে এবং সক্রিয়ভাবে গাড়ি চালানো শুরু করতে পারেন, বলেই জানিয়েছে পরামর্শদাতা সংস্থা ‘প্রাইসওয়াটারহাউজকুপারস’। ইতোমধ্যেই, দেশটির বেশ কয়েকটি শহরে নারীদের প্রশিক্ষণের জন্য ‘ড্রাইভিং স্কুল’ খোলা হয়েছে যা বছরখানেক আগেও অকল্পনীয় একটি ব্যাপার ছিল। 

About

Popular Links