Sunday, May 26, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

পাইলটের সিটের নিচে গোখরা, উড়োজাহাজের জরুরি অবতরণ

উড়োজাহাজটি যখন ১১ হাজার ফুট উচ্চতায় উড়ছিল তখন পাইলট সাপটি দেখেন

আপডেট : ০৫ এপ্রিল ২০২৩, ১০:০৩ পিএম

১১ হাজার ফুট উচ্চতায় উড়ছিল যাত্রীবাহী উড়োজাহাজটি। হঠাৎ নিজের সিটের নিচে গোখরা সাপ দেখতে পান পাইলট। পরে উড়োজাহাজের জরুরি অবতরণ করানো হয়।

এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

প্রতিবেদনে বলা হয়, দক্ষিণ আফ্রিকার পাইলট রুডল্ফ এরাসমুস ওই উড়োজাহাজ পরিচালনা করছিলেন। এটি যখন ১১ হাজার ফুট উচ্চতায় উড়ছিল তখন তিনি সাপটি দেখেন।

রুডল্ফ এরাসমুস বলেন, সত্যি কথা কী ঘটছে তা আমার মস্তিষ্ক বুঝতে পারছিল না। হকচকিয়ে যাওয়ার একটি মুহূর্ত ছিল।

তিনি জানান, প্রথমে মনে হয়েছিল তার পিঠে হয়ত ঠান্ডা কোনো পানির বোতল রয়েছে।

তিনি আরও বলেন, আমি শীতল অনুভূতি পাচ্ছিলাম শার্টের ওপর দিয়ে। প্রথমে ভাবছিলাম হয়ত বোতলের মুখ ঠিকমতো লাগানো হয়নি এবং শার্ট গড়িয়ে হয়ত পানি পড়ছে।

তিনি আরও বলেন, আমি যখন বাঁ দিকে ফিরে নিচের দিকে তাকাই তখন দেখতে পাই গোখরা সাপটি আমার সিটের নিচে মাথা লুকিয়ে আছে।

সাপটি দেখতে পাওয়ার পর সোমবার ব্লুমফন্টেইন থেকে প্রিটোরিয়া ফ্লাইটের গন্তব্য পাল্টে উড়োজাহাজের জরুরি অবতরণ করেন পাইলট। এতে আরও চার যাত্রী ছিলেন।

গোখরা সাপের মাত্র একবার দংশনে একজন মানুষের ৩০ মিনিটের মধ্যে মৃত্যু হতে পারে। বিষয়টি ওই পাইলট জানতেন। তাই তিনি সতর্কতা অবলম্বন করেন। কারণ সবাই জানলে অনেকেই হয়তো আতঙ্কিত হতে পারতেন।

যাত্রীদের প্রতিক্রিয়া সম্পর্কে পাইলট বলেছেন, বিষয়টি বলার পর পিনপতন নীরবতা বিরাজ করছিল। আমার মনে হয় সবাই এক বা দুই মিনিটের স্তব্ধ হয়ে যায়।

এরাসমুস বলেছেন, পাইলটদের অনেক প্রতিকূল পরিস্থিতির জন্য প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। তবে আমি নিশ্চিত এমন পরিস্থিতির কথা হয়তো ভাবা হয়নি। আতঙ্কিত হতে পরিস্থিতি আরও খারাপ হত। উড়োজাহাজটি ওয়েলকম শহরে জরুরি অবতরণ করে।

এদিকে ওরচেস্টার ফ্লাইং ক্লাবের দুই কর্মী বলেছেন, উড়োজাহাজে একটি সাপের উপস্থিতি তারা টের পেয়েছিলেন। তারা এটিকে ধরতে চেষ্টা করলেও সফল হননি। এই বিমানবন্দর থেকেই প্রথমে উড্ডয়ন করে উড়োজাহাজটি।

এরাসমুসও বিষয়টি জানতেন। তিনি বলেছেন, উড়োজাহাজে যাত্রীরা উঠার আগে তিনি সাপটিকে খুঁজে বের করার চেষ্টা করছিলেন। কিন্তু খুঁজে পাননি। মনে করেছিলেন রাতে বা ভোরে সাপটি হয়ত নেমে গেছে। ফলে উড়োজাহাজ যাত্রীদের জন্য নিরাপদ।

একজন বীর হিসেবে এরাসমুস প্রশংসিত হচ্ছেন। দক্ষিণ আফ্রিকার সিভিল অ্যাভিয়েশন কমিশনার পপি খসাও তার প্রশংসা করেছেন।

About

Popular Links