Wednesday, May 29, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

বিয়েতে আগ্রহ কমছে চীনাদের

১৯৮৬ সাল থেকে বিয়ের নিবন্ধন শুরুর পর দেশটিতে আর কোনো বছর এত কম বিয়ের নিবন্ধন হয়নি

আপডেট : ১২ জুন ২০২৩, ০৩:৩০ পিএম

চীনে বিয়ের সংখ্যা কমে এসেছে। দেশটির তথ্য বলছে, ২০২২ সালে বিয়ের সংখ্যা ছিল সর্বনিম্ন।

চীনের সিভিল অ্যাফেয়ার্স মন্ত্রণালয়ের প্রকাশিত পরিসংখ্যান অনুসারে, ২০২২ সালে ৬৮ লাখ ৩০ হাজার দম্পতি তাদের বিয়ে নিবন্ধন করেছেন। যা ২০২১ সালের তুলনায় প্রায় ৮ লাখ কম।

১৯৮৬ সাল থেকে বিয়ের রেজিস্ট্রেশন প্রকাশ শুরুর পর দেশটিতে আর কোনো বছর এত কম বিয়ের নিবন্ধন হয়নি। 

এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে চীনের সংবাদমাধ্যম চায়নাডেইলি।

প্রতিবেদনে বলা হয়, চীনে ২০২২ সালে ২০১৩ সালের তুলনায় বিয়ের নিবন্ধনের সংখ্যা ৪৯.৩% কমেছে। ২০১৩ সালে দেশটিতে মোট বিয়ের নিবন্ধন হয়েছিল ১ কোটি ৩৪ লাখ ৭০ হাজার। 

এতে বলা হয়, ২০১৯ সাল থেকেই মূলত চীনে বিয়ের নিবন্ধন কমতে শুরু করে। ওই বছর দেশটিতে ১ কোটির সামান্য কম বিয়ের নিবন্ধন হয়েছিল। এরপর থেকে তা অব্যাহতভাবে কমতে থাকে। ২০২১ সালে সেখানে বিয়ের নিবন্ধন হয়েছিল ৭৬ লাখ ৪০ হাজার।

বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম অর্থনীতিটাতে বিয়ের নিবন্ধন বা বিয়ে কম হওয়ার অনেকগুলো কারণ আছে। এর মধ্যে একটি হল, বিবাহযোগ্য তরুণ-তরুণীর সংখ্যা কমে আসা। 

১৯৮০ থেকে ১৯৮৯ সালে চীনে বছরে গড়ে ২ কোটি ২০ লাখ ৯০ হাজার শিশু জন্মগ্রহণ করে। ১৯৯০ থেকে ৯৯ সালের মধ্যে তা কমে ২ কোটি ৮৫ হাজারে নেমে আসে। 

বিয়ে কম করার আরেকটি কারণ, বিলম্বে বিয়ে। ২০১০ থেকে ২০২০ সালের মধ্যে চীনা নারীদের বিয়ের বয়স গড়ে প্রায় ৪ বছর বেড়েছে। ২০১০ সালে চীনা নারীরা গড়ে ২৪ বছরের মধ্যে বিয়ে করতেন। ২০২২ সালে তা বেড়ে ২৭.৯৫ বছরে পৌঁছেছে। 

বিয়ের সংখ্যা কমায় বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম জনসংখ্যার দেশটিতে বিবাহ-বিচ্ছেদের সংখ্যাও কমেছে। ২০২২ সালে চীনে প্রায় ২১ লাখ মানুষ বিচ্ছেদের রেজিস্ট্রেশন করে। ২০২১ সালে তা ছিল প্রায় ৪০ হাজার বেশি, তথা ২১ লাখ ৪০ হাজারের মতো।

বিয়ে ও সন্তান জন্মদানে উৎসাহ দিতে মে মাসে চীন একটি পাইলট প্রকল্প শুরু করেছে। কয়েকটি প্রদেশ তরুণ নববিবাহিতদের বেতনসহ ছুটির মেয়াদ বাড়িয়েছে।

About

Popular Links