Tuesday, May 21, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

ভারী বর্ষণে কেরালায় ভূমিধস, ১৫ জনের মৃত্যু

বন্যা ও ভূমিধসের কারণে রাজ্যের কোট্টায়াম ও ইদুক্কি জেলার বেশ কয়েকটি ঘরবাড়ি ভেসে গেছে, নিখোঁজ রয়েছে অনেক মানুষ

আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২১, ০৬:৪২ পিএম

ভারতের দক্ষিণাঞ্চলীয় রাজ্য কেরালায় প্রবল বৃষ্টির কারণে সৃষ্ট বন্যা ও ভূমিধসে ১৫ জন নিহত হয়েছে বলে জানা গেছে।

তাদের মধ্যে কোট্টায়াম জেলায় ১২ জন এবং বাকি ৩ জন ইদুক্কি জেলার।

বন্যা ও ভূমিধসের কারণে রাজ্যের কোট্টায়াম ও ইদুক্কি জেলার বেশ কয়েকটি ঘরবাড়ি ভেসে গেছে, এবং আরও অনেক মানুষ নিখোঁজ রয়েছে।

ভারতীয় গণমাধ্যম দ্য হিন্দু রিপোর্টারস থেকে জানা যায়, কোটায়াম জেলার কুটিকল পঞ্চায়েতে ভূমিধসের ঘটনায় একটি পরিবারের ছয়জন সদস্য মারা গেছেন। পরবর্তীতে উদ্ধারকারীরা ওই অঞ্চল থেকে আরও দুটি লাশ উদ্ধার করে।

ইর্নাকুলাম জেলার কুথাট্টুকুলাম শহরের একজন পুরুষ ও একজন নারী বন্যার পানিতে ভেসে যাওয়ার পর ইদুক্কি জেলার কানজার গ্রামে মারা যান তারা।

শনিবার (১৬ অক্টোবর) সন্ধ্যায়, কেরেলার মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন বন্যা পরিস্থিতি পর্যালোচনা সভায় জানান, বন্যা ও ভূমিধসের পরিস্থিতি গুরুতর। তিনি আটকে পড়া মানুষদেরকে উদ্ধারে সরকারের সর্বাত্মক প্রচেষ্টার প্রতিশ্রুতি দেন।

তিনি আরও জানান, কেরালা রাজ্য জুড়ে মোট ১০৫ টি ত্রাণ শিবিরকেন্দ্র স্থাপন করা হয়েছে এবং সরকার আরও ত্রাণ শিবিরকেন্দ্র তৈরি করার ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে।

ক্ষতিগ্রস্ত জেলার কর্মকর্তারা অনেক পরিবারকে শিবিরেকেন্দ্রে স্থানান্তরিত করেছেন। কিছু জেলায় সেনাবাহিনী এবং জাতীয় দুর্যোগ মোকাবিলা বাহিনীকে উদ্ধারকাজে মোতায়েন করা হয়েছে।

ভারতীয় গণমাধ্যম দ্য নিউ ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস জানিয়েছে, কেরালার সরকার কলেজগুলোর ছুটি ২০ অক্টোবর পর্যন্ত বাড়িয়েছে।

রবিবার(১৭ অক্টোবর) কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ জানান, সরকার কেরালার পরিস্থিতি নিয়মিত পর্যবেক্ষণ করছে।

About

Popular Links