Wednesday, May 29, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

দিল্লিতে দূষণ: 'বাড়ি থেকে কাজ' করার নির্দেশ দিয়েছে ভারতের উচ্চ আদালত

দিল্লিতে শীতকালে বায়ু দূষণের অন্যতম উৎস ফসলের বর্জ্য পোড়ানো

আপডেট : ১৫ নভেম্বর ২০২১, ০৩:৫৪ পিএম

দিল্লির বাতাসে দূষণের মাত্রা মারাত্মকভাবে বেড়ে যাওয়া রাজধানী এবং আশেপাশের শহরগুলোতে অফিস বন্ধ করে বাড়িতে থেকে কাজ করার আদেশ দিয়েছে ভারতের সুপ্রিম কোর্ট। এর আগে দিল্লির স্কুলগুলো বন্ধ ঘোষণা করে কর্তৃপক্ষ।

নভেম্বরের প্রথম দিক থেকে বিষাক্ত বাতাসের বিরুদ্ধে লড়াই করা দিল্লির নগর কর্তৃপক্ষকে জরুরি ব্যবস্থা গ্রহণের অংশ হিসেবে সোমবার (১৫ নভেম্বর) থেকে চার দিনের জন্য স্কুল এবং অফিস বন্ধ রাখার নির্দেশনা নির্দেশনা জারি করে আদালত।

শহরের বাসিন্দাদের একটি পিটিশন বিবেচনা করে তিন বিচারকের প্যানেলের প্রধান বিচারপতি এনভি রমনা শনিবার দেওয়া আদেশে বলেন, " আমরা দেশের রাজধানী এবং রাজ্যের কেন্দ্রীয়স্থল দিল্লি ও এর আশেপাশের শহরগুলোতো এই সময়ে বাড়ি থেকে কাজ করার নির্দেশ দিচ্ছি।"

আদালত প্রতিবেশী রাজ্য হরিয়ানা, পাঞ্জাব এবং উত্তর প্রদেশে নতুন বীজ বপনের মৌসুমে ক্ষেত পরিষ্কার করার জন্য ফসলের বর্জ্যে আগুন লাগানোর বিষয়েও জরুরী পদক্ষেপ নিতে বলেছে।

বিচারপতি সূর্য কান্ত বলেন, “আমরা এই বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে চাই।” যদিও আদালত কর্তৃপক্ষের পদক্ষেপের জন্য কোনো সময়সীমা নির্ধারণ করেনি, তবে বুধবার এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হতে পারে।

শীতকালে বায়ু দূষণের অন্যতম প্রধান উৎস ফসলের বর্জ্য পোড়ানো কমানোর প্রচেষ্টা হিসেবে বিগত চার বছরে কোটি কোটি টাকা ব্যয় সত্ত্বেও তেমন কোনো লাভ হয়নি ভারতে।

সোমবার দিল্লিতে ৫০০ স্কেলের সূচকে বাতাসের মান ৩৪৩ এ দাঁড়িয়েছে, যা "খুব খারাপ" অবস্থার লক্ষণ এবং এটি দীর্ঘায়িত হলে শ্বাসকষ্টজনিত অসুস্থতা হতে পারে।

গত সপ্তাহের শেষের দিকে রাজধানীতে তাপমাত্রা কমে যায় এবং সূচক ৪৯৯-এ পৌঁছানোর পর ভয়াবহ অবস্থার সৃষ্টি হয়।

সুপ্রিম কোর্ট অতি জরুরি কাজে ব্যবহৃত ছাড়া সকল যানবাহন চলাচল বন্ধ করার পাশাপাশি শিল্প দূষণ কমাতে এবং ধুলো সীমিত করার ব্যবস্থা গ্রহণেরও নির্দেশ দিয়েছে।

দিল্লির নিম্নমানের বায়ুর কারণে শহরটি প্রায়ই বিশ্বের সবচেয়ে দূষিত রাজধানী হিসেবে স্থান পায়। শহরের বাইরে কয়লা-চালিত প্ল্যান্টের পাশাপাশি খোলা জায়গায় আবর্জনা পোড়ানোও এর দূষণের একটি বড় কারণ।

About

Popular Links