Monday, May 20, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

পোস্টারে লেখা ছিল: ‘বউ ফেরত চাই’

অনশনে থাকা হরিদাস জানান, স্ত্রী ও সন্তানকে ফিরে না পাওয়া পর্যন্ত তিনি এভাবেই বসে থাকবেন

আপডেট : ২৪ নভেম্বর ২০২১, ১১:৩৮ পিএম

রাগ করে স্ত্রী বাবার বাড়ি চলে গেলে মান ভাঙাতে কেউ ফুল নিয়ে হাজির হন, আবার কেউ স্ত্রীর পছন্দের কোনো জিনিস উপহার দেন। কিন্তু স্ত্রীর অভিমান ভাঙাতে পোস্টারে “বউ ফেরত চাই” লিখে শ্বশুরবাড়ি হাজির হওয়ার ঘটনা বোধহয় এই প্রথম ঘটলো। সম্প্রতি ভারতের পশ্চিমবঙ্গে হরিদাস মণ্ডল নামে এক এমনই এক কাণ্ড ঘটিয়েছেন বলে দেশটির দৈনিক সংবাদ প্রতিদিনের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে। 

মঙ্গলবার (২৩ নভেম্বর) পশ্চিমবঙ্গের জলপাইগুড়ি জেলার মালবাজার মহকুমার কাঠামবাড়ি এলাকার রাজমিস্ত্রি হরিদাস “বউ ফেরত চাই” পোস্টার নিয়ে হাজির হন স্ত্রী জ্যোৎস্না মণ্ডলের বাবার বাড়িতে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, চার বছর আগে হরিদাস মণ্ডলের সঙ্গে জ্যোৎস্না মণ্ডলের বিয়ে হয়। তাদের ঘরে একটি কন্যাসন্তানও রয়েছে। কিন্তু এক বছর আগে সামান্য ঝগড়ার কারণে সন্তানকে নিয়ে বাবার বাড়ি চলে যান জ্যোৎস্না।

রিদাসের অভিযোগ, তার শ্বশুরবাড়ির লোকজন জোর করে জ্যোৎস্না ও তাদের সন্তানকে আটকে রেখেছে।

তবে জ্যোৎস্না বলেন, “হরিদাসের সঙ্গে আমি আর সংসার করতে চাই না। সে আমার ওপর শারীরিক নির্যাতন করত। তাই আমি সন্তানকে নিয়ে বাবার বাড়ি চলে এসেছি।”

জ্যোৎস্না অভিযোগ করে বলেন, “হরিদাস আমাকে বাবার বাড়িতে এসেও শারীরিক নির্যাতন করেছে। তাই মেয়েকে নিয়ে আমি বাবার বাড়িতেই থাকতে চাই। আমার দাবি, আমার এবং মেয়ের খরচ যেন হরিদাস দেয়।”

দিকে, অনশনে বসে থাকা হরিদাস বলেন, “স্ত্রী ও সন্তানকে ফিরে না পাওয়া পর্যন্ত আমি এভাবেই বসে থাকবো। আমি মরতেও রাজি।”

তবে শেষ পর্যন্ত মঙ্গলবার স্থানীয় সময় রাতে থানা পুলিশ ও স্থানীয় পঞ্চায়েত সদস্যের অনুরোধে অনশন প্রত্যাহার করেন তিনি।

About

Popular Links