Tuesday, May 28, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

নিজ্জার হত্যা তদন্তে কানাডাকে সহযোগিতা করবে ভারত, আশা যুক্তরাষ্ট্রের

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, নিজ্জার হত্যাকাণ্ডের তদন্তের গতিপথ যেন ঠিকমতো চলে আর ফলপ্রসূ হয়৷ আমরা আশা করব যে আমাদের ভারতীয় বন্ধুরাও সেই তদন্তে সহযোগিতা করবে

আপডেট : ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ০৭:৩৪ পিএম

কানাডার নাগরিক ও খালিস্তানি নেতা হরদীপ সিং নিজ্জার হত্যাকাণ্ডের সুষ্ঠু তদন্তে কানাডাকে সহযোগিতা করতে ভারতের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন বলেছেন, “যুক্তরাষ্ট্র ‘আন্তর্জাতিক স্তরে দমন-পীড়নের ঘটনাগুলো অত্যন্ত বেশি গুরুত্ব দিয়ে দেখে৷ আমরা জবাবদিহিতার বিষয়টি দেখতে চাই। নিজ্জার হত্যাকাণ্ডের তদন্তের গতিপথ যেন ঠিকমতো চলে আর ফলপ্রসূ হয়৷ আমরা আশা করব যে আমাদের ভারতীয় বন্ধুরাও সেই তদন্তে সহযোগিতা করবে।’’

শুক্রবার (২২ সেপ্টেম্বর) জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে যোগ দিয়ে এ আহ্বান জানান তিনি। যুক্তরাষ্ট্র এমন সময় এই আহ্বান জানালো যখন দুই দেশের মধ্যে সম্পর্ক খুবই শিথিল অবস্থায় পৌঁছেছে।

নিজ্জার হত্যাকাণ্ডের জন্য ভারতকে কাঠগড়ায় তোলেন কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো। গত সোমবার হাউজ অব কমন্সে দেওয়া ভাষণে ট্রুডো বলেন, “কানাডার নাগরিক নিজ্জার হত্যাকাণ্ডে ভারত সরকারের গুপ্তচরদের জড়িত থাকার গ্রহণযোগ্য অভিযোগ তদন্ত করছে কানাডীয় গোয়েন্দা সংস্থাগুলো।”

ট্রুডোর এই অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করে ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। তারা বলছে, এই অভিযোগ অযৌক্তিক ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। একই অভিযোগ নরেন্দ্র মোদির কাছে করেছিলেন ট্রুডো। আমরা তা সম্পূর্ণ প্রত্যাখ্যান করেছি।

এই হত্যাকাণ্ডকে ঘিরে কানাডিয়ানদের ভিসা স্থগিত করেছে ভারত। এর আগে ভারতীয় দূতাবাসের এক কূটনীতিককে বরখাস্ত করে অটোয়া। পাল্টা পদক্ষেপ নেয় ভারতও। কানাডা দূতাবাসের এক কূটনীতিককে বরখাস্ত করে দিল্লি।

খালিস্তানি এই নেতার হত্যাকাণ্ডের তদন্তে ভারতকে তদন্তে সহযোগিতা করার আহ্বান জানিয়েছে কানাডাও। শুক্রবার ট্রুডো বলেছেন, “অভিযোগগুলো প্রকাশ্যে আসার আগে নয়াদিল্লির সঙ্গে তারা উদ্বেগের জায়গাগুলো ভাগ করে নিয়েছেন। ভারতের বিরুদ্ধে যে বিশ্বাসযোগ্য অভিযোগের কথা বলেছিলাম, কানাডা তা জানিয়েছে। আমরা অনেক সপ্তাহ আগে ভারতের সঙ্গে এ নিয়ে কথা বলেছি।”

উল্লেখ্য, গত ১৮ জুন কানাডার নাগরিক ও ভারতের বিচ্ছিন্নতাবাদী সংগঠন কেটিএফ প্রধান নিজ্জারকে গুলি করে হত্যা করা হয়। ব্রিটিশ কলম্বিয়া প্রদেশের পাঞ্জাবি অধ্যুষিত শিখদের ধর্মীয় উপাসনালয়ের পার্কিংয়ে মৃত অবস্থায় পাওয়া যায় তাকে। দীর্ঘদিন ধরে তাকে খুঁজছিল ভারতীয় নিরাপত্তা বাহিনী। তার মাথার দাম ১০ লাখ রুপি ঘোষণা করেছিল ভারত।

ভারতের পাঞ্জাবের অন্যতম নৃতাত্ত্বিক জনগোষ্ঠী শিখ সম্প্রদায়। যারা ভারত থেকে আলাদা হয়ে কথিত স্বাধীন রাষ্ট্র “খালিস্তান” প্রতিষ্ঠার দাবিতে আন্দোলন করে আসছে; যা “খালিস্তানি” আন্দোলন নামে পরিচিত। কিন্তু ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার এই দলটিকে সন্ত্রাসী হিসেবে বিবেচনা করে আসছে।

গত কয়েক বছর ধরে ভারত-কানাডা কূটনৈতিক সম্পর্ক কিছুটা টানাপোড়েনের মধ্য দিয়ে যাচ্ছিল৷ বর্তমান ঘটনাবলী সেই পরিস্থিতিকে আরো জটিল করে তুলছে।

 

About

Popular Links