Monday, May 27, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

শি জিনপিংয়ের আমন্ত্রণে চীনে গেলেন পুতিন

চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং তার মিত্র পুতিনকে পশ্চিমাদের বিরুদ্ধে শক্তির ভারসাম্য রক্ষায় খুবই কার্যকর একজন বলে মনে করেন

আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২৩, ১২:৩২ পিএম

শি জিনপিংয়ের যুগান্তকারী বেল্ট অ্যান্ড রোড ইনিশিয়েটিভ (বিআরআই) প্রকল্পের দশম বর্ষপূর্তি উপলক্ষে বেইজিংয়ে একটি সম্মেলনের আয়োজন করেছে চীন। এই সম্মেলনে যোগ দিতে মঙ্গলবার (১৭ অক্টোবর) চীনে পৌঁছেছেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন।

২০২২ সালের ফেব্রুয়ারিতে রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ শুরুর পর পুতিন এই প্রথম কোনো বৈশ্বিক শক্তিধর দেশ সফরে গেলেন।

বর্তমানে মধ্যপ্রাচ্যে ফিলিস্তিন-ইসরায়েলের মধ্য রক্তক্ষয়ী সংঘাত চলছে। অন্যদিকে, ইউরোপে চলছে রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ। এর ছায়া সম্মেলনে পড়বে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

ক্রেমলিন জানিয়েছে, বুধবার পুতিন ও শি বৈঠকে বসবেন। রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী লাভরভ জানিয়েছেন, পুতিনকে আমন্ত্রণ জানানো  হয়েছে এবং তাকে প্রধান অতিথির সম্মান দেওয়া হয়েছে, সেজন্য তিনি চীনকে ধন্যবাদ জানাচ্ছেন। এই সফরের ফলে দুই দেশের মধ্যে বন্ধুত্ব আরও বাড়বে।

দুই দেশের মধ্যে সম্পর্ক খুবই ভালো। ইউক্রেন যুদ্ধে চীন রাশিয়ার বিরুদ্ধাচরণ করেনি। বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, বেইজিং যে মস্কোকে সমর্থন করে পুতিনের এই সফর তারই প্রতীকী হিসেবে থাকবে।

কার্নেগি রাশিয়া-ইউরেশিয়া সেন্টারের আলেকজান্ডার গ্যাবুয়েভ বলেছেন, “রাশিয়ার সঙ্গে চীন এখন কোনো বড় চুক্তি করবে না। চীন এখন সব তাস বুকের কাছে রেখে দিয়েছে। কাউকে দেখতে দিচ্ছে না।”

চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং তার মিত্র পুতিনকে পশ্চিমাদের বিরুদ্ধে শক্তির ভারসাম্য রক্ষায় খুবই কার্যকর একজন বলে মনে করেন। সম্প্রতি পশ্চিমা আধিপত্য কমাতে পুতিন ও শি বেশ তৎপর হয়েছেন। গত মার্চে মস্কোতে  গিয়েছিলেন শি।

About

Popular Links