Friday, June 14, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

জাতিসংঘের যুদ্ধবিরতি প্রস্তাবনা প্রত্যাখ্যান করলো ইসরায়েল

ইসরায়েলি পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাতিসংঘের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যানের পর বলেন, আমরা হামাসকে নির্মূল করতে চাই

আপডেট : ২৮ অক্টোবর ২০২৩, ০৮:৪৩ পিএম

ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকায় মানবিক সহায়তার জন্য অবিলম্বে যুদ্ধবিরতির আহ্বান জানিয়ে জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদে একটি প্রস্তাব পাস হয়েছে। তবে এই প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করে এটিকে জঘন্য বলে উল্লেখ করেছেন ইসরায়েলি পররাষ্ট্রমন্ত্রী ইলি কোহেন।

শুক্রবার (২৭ অক্টোবর) স্থানীয় সময় বিকেলে নিউইয়র্কে জাতিসংঘের সদর দপ্তরে পরিষদের জরুরি অধিবেশন প্রস্তাবটির ওপর ভোটাভুটি হয়।

এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে তুরস্কের বার্তা সংস্থা আনাদোলু এজেন্সি।

ইসরায়েলের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ইলি কোহেন এক্সে (সাবেক টুইটার) বলেন, আমরা গাজার যুদ্ধবিরতির প্রস্তাব প্রত্যাখান করছি। এটি একটি জঘন্য প্রস্তাব।

কোহেন জাতিসংঘের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যানের পর বলেন, আমরা হামাসকে নির্মূল করতে চাই। যেভাবে নাৎসি ও আইএসকে নির্মূল করা হয়েছে।

এর আগে, তুরস্ক, ফিলিস্তিন, মিসর, জর্ডান, সৌদি আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাতসহ ৫০টি দেশ যুদ্ধবিরতির প্রস্তাব উপস্থাপন করে। এই প্রস্তাবটি ১২০/১৪ ভোটে পাস হয়েছে। ৪৫টি দেশ এই প্রস্তাবে ভোট দেওয়া থেকে বিরত ছিল।

এই প্রস্তাবে, বেসামরিক নাগরিকদের ওপর আগ্রাসনের নিন্দা করা হয়েছে। তাছাড়া সন্ত্রাসী কার্যক্রম ও নির্বিচারে আক্রমণ করা এবং কোনো পক্ষকে উসকানি দেওয়া ইত্যাদি কাজের নিন্দা জানানো হয়েছে।

জাতিসংঘের এই প্রস্তাবের মাধ্যমে সব পক্ষকে আন্তর্জাতিক আইন মেনে চলার আহ্বান জানানো হয়েছে। তাছাড়া এই প্রস্তাবে সহিংসতা বন্ধের ওপর জোর দেওয়া হয়েছে।

সাধারণ পরিষদে কোনো দেশের ভেটো ক্ষমতা নেই। তবে এই পরিষদে গৃহীত প্রস্তাব বাস্তবায়নের কোনো আইনি বাধ্যবাধকতা নেই, কিন্তু রাজনৈতিক গুরুত্ব রয়েছে।

গত ৭ অক্টোবর ইসরায়েল-ফিলিস্তিন সংঘাত শুরু হয়। গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুসারে, ইসরায়েলি হামলায় এখন পর্যন্ত ৭,৩২৬ জন ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। এর মধ্যে শিশুর সংখ্যা ২,৯১৩।

জাতিসংঘের হিসেব মতে, এখন পর্যন্ত গাজায় বাস্তুচ্যুত হয়েছে প্রায় ১৪ লাখ মানুষ। অপরদিকে হামাসের হামলায় এক হাজার ৪০০ ইসরায়েলি নিহত হয়েছেন।

About

Popular Links