Tuesday, May 21, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

মদ ও মিষ্টি পানীয়র ওপর কর বাড়ানোর পরামর্শ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার

প্রতিবছর মদ্যপানের কারণে ২৬ লাখ মানুষ এবং অস্বাস্থ্যকর খাবার খেয়ে ৮০ লাখ মানুষের ‍মৃত্যু ঘটছে

আপডেট : ০৬ ডিসেম্বর ২০২৩, ১১:৫২ এএম

বিশ্বের সব দেশে মদ-মিষ্টি পানীয়র ওপর কর বাড়ানোর পরামর্শ দিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। এই কর বাড়ালে অনেক মানুষকে বাঁচানো সম্ভব হবে বলে মনে করে সংস্থাটি।

বিশ্বের সব দেশের মদ-মিষ্টি পানীয়র ওপর বিদ্যমান করের হার পরীক্ষা করার পর বিশ্ব স্বাস্থ্যসংস্থা মঙ্গলবার (৫ ডিসেম্বর) জানিয়েছে, এই অস্বাস্থ্যকর পানীয়র ওপর করের হার খুবই কম। কিছু ইউরোপীয় দেশে ওয়াইনের ওপর কোনো করই নেই।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলছে, বিশ্বে প্রতিবছর মদ্যপানের কারণে ২৬ লাখ মানুষ এবং অস্বাস্থ্যকর খাবার খেয়ে ৮০ লাখ মানুষের ‍মৃত্যু ঘটছে।

বেশি কর আরোপ করলে মানুষ এই সব খাদ্য ও পানীয় খাওয়া কমিয়ে দেবে বলে মনে করে সংস্থাটি। এছাড়া স্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়া নিয়ে প্রচারণার মাধ্যমে মানুষকে সচেতন করারও পরামর্শ দিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।

এ বিষয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার হেলথ প্রমোশন ডিরেক্টর বলেন, “অস্বাস্থ্যকর খাদ্য-পানীয়র ওপর কর বসালে মানুষ স্বাস্থ্যকর খাবার খায়। এর একটা ইতিবাচক প্রভাব সমাজে পড়ে। অসুখ কম হয়। সরকারের রাজস্ব বাড়ে। তা দিয়ে মানুষকে পরিষেবা দেওয়া সম্ভব হয়। অ্যালকোহলের ওপর বেশি কর বসালে সহিংসতা ও রাস্তায় দুর্ঘটনার সংখ্যাও কমবে।”

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানিয়েছে, ১৯৪টি দেশের মধ্যে ১০৮টি দেশ চিনি দিয়ে মিষ্টি করা পানীয়র ওপর কিছু কর বসিয়েছে। কিন্তু অনেকে আবার খাবার পানির ওপরও কর বসিয়েছে, যা তারা একেবারেই অনুমোদন করে না।

তাদের মতে, মদের একটা ন্যূনতম দাম ঠিক করে দিতে হবে এবং কর বসাতে হবে। তাহলে মদ খাওয়া কমবে, মদের সঙ্গে জড়িত মৃত্যুর সংখ্যা কমবে, সহিংসতা ও ট্রাফিক সংক্রান্ত সমস্যা কমবে। সমীক্ষায় দেখা গেছে, যারা খুব বেশি পান করেন, তাদের সস্তা মদ খাওয়ার প্রবণতা বেশি থাকে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সহকারী মহাপরিচালকের মতে, যত দিন যাচ্ছে, ততই মানুষের মদ কিনে খাওয়ার সামর্থ বাড়ছে। এজন্যই কর বসানো এবং দাম নির্ধারণ করাটা খুবই জরুরি।

About

Popular Links