Wednesday, May 29, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

আবুধাবিতে আদালতের ভাষা হিসাবে স্বীকৃতি পেল হিন্দি

কূটনীতিকরা আশা করছেন, হিন্দিকে স্বীকৃতি দেওয়ার এই সিদ্ধান্ত ভারত এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কে ইতিবাচক প্রভাব ফেলবে।

আপডেট : ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০৬:২৫ পিএম

আদালতে ব্যবহারযোগ্য তৃতীয় ভাষা হিসাবে হিন্দিকে স্বীকৃতি দিয়েছে আবুধাবি। এতদিন শুধুমাত্র আরবি ও ইংরেজি ভাষাতেই আইনি প্রক্রিয়াগুলোর কাজ হয়ে আসছিল সেখানে। এখন থেকে সেখানকার আদালতে আইনি কার্যাদি করা যাবে হিন্দি ভাষাতেও।

আবুধাবির বর্তমান জনসংখ্যা ৫০ লক্ষের কাছাকাছি, যার দুই-তৃতীয়াংশই বিদেশ থেকে আসা অভিবাসী। এর মধ্যে ভারতীয় বংশোদ্ভূতদের সংখ্যাই প্রায় ২৬ লক্ষ, যাদের মাতৃভাষা মূলত হিন্দি। আরবি ও ইংরেজিতে সেরকম কোন দখল না থাকায় তাই প্রায়ই আইনি ভাষা বুঝতে বেগ পেতে হয় তাদের। তাই এবার তাদের কথা ভেবেই এমন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। 

আবুধাবির বিচার বিভাগের সূত্রানুসারে,  হিন্দিকে স্বীকৃতি দেওয়ায় সবচেয়ে বেশি উপকৃত হবেন বিদেশি শ্রমিকরা। আরবি ও ইংরেজিতে দখল না থাকলেও হিন্দিতেই নিজেদের দাবি-দাওয়া লিখিতভাবে জানাতে পারবেন তারা। জবানবন্দিও দিতে পারবেন হিন্দিতে। জমা দেওয়া যাবে পিটিশনও। এমনকি আদালতে ব্যবহৃত নানা ধরনের আবেদনপত্রও এই সিদ্ধান্তের পর থেকে ছাপানো হবে হিন্দিতে।

শুধু তাই নয়, বিচার বিভাগের ওয়েবসাইটেরও একটি হিন্দি সংস্করণ আনা হবে যেখানে   জটিল আইনি ভাষাগুলো হিন্দিতেও অনুবাদ করা থাকবে। প্রয়োজন মতো সেখানকার আইন-কানুন যেন সহজেই বুঝতে এবং রপ্ত করে নিতে পারে বিদেশি নাগরিকরা তাই এই ব্যবস্থা। মামলা সংক্রান্ত ফাইলপত্র এবং আদালতের রায়েরও হিন্দি কপি হাতে পাবে তারা।

সংযুক্ত আরব আমিরাতের ডেপুটি প্রধানমন্ত্রী এবং আবুধাবির বিচার বিভাগের চেয়ারম্যান শেখ মনসুর বিন জায়েদ আল নাহিয়ানের নির্দেশেই হিন্দিকে আদালতে তৃতীয় ভাষা হিসাবে স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন বিচার বিভাগের আন্ডার সেক্রেটারি ইউসেফ সঈদ আল আবরি। শেখ মনসুর বিন জায়েদ আল নাহিয়ান রাষ্ট্রপতি উপদেষ্টা সংক্রান্ত দফতরেরও প্রধান। বিচার ব্যবস্থায় স্বচ্ছতা আনতেই তিনি এই নির্দেশ দেন।

কূটনীতিকরা আশা করছেন, হিন্দিকে স্বীকৃতি দেওয়ার এই সিদ্ধান্ত ভারত এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কে ইতিবাচক প্রভাব ফেলবে।



About

Popular Links