Thursday, May 30, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

শিক্ষার্থী ভিসা দেওয়ার ক্ষেত্রে নিয়ম বদলাচ্ছে অস্ট্রেলিয়া

কম দক্ষতাসম্পন্ন কর্মীদের ব্যাপারেও ভিসা নীতিতে কড়াকড়ি আরোপ করা হবে

আপডেট : ১৪ ডিসেম্বর ২০২৩, ০৫:৫৪ পিএম

অভিবাসীর সংখ্যা কমিয়ে আনতে ভিসানীতিতে পরিবর্তন আনতে যাচ্ছে অস্ট্রেলিয়া। দেশটিতে অভিবাসীর সংখ্যা রেকর্ড মাত্রায় বেড়ে যাওয়ায় আবাসন ও অবকাঠামোগত সংকট কাটাতে দেশটির সরকার এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে। নতুন নীতিতে বিদেশি শিক্ষার্থীদের ভিসা দেওয়ার ক্ষেত্রে কড়াকড়ি আরোপ করা হবে। পাশাপাশি কম দক্ষতাসম্পন্ন কর্মীদের ব্যাপারেও ভিসা নীতিতে কড়াকড়ি আরোপ করা হবে।

সম্প্রতি এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে বার্তাসংস্থা রয়টার্স।

প্রতিবেদনে বলা হয়, আগামী দুই বছরের মধ্যে অভিবাসী সমস্যা সমাধানে এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে দেশটি। এ সিদ্ধান্তের ফলে অভিবাসীদের সংখ্যা উল্লেখযোগ্য হারে আসবে বলে আশা করছে দেশটির সরকার।

শিক্ষার্থীদের ভিসার ক্ষেত্রে নতুন নীতিতে বলা হয়েছে, বিদেশি শিক্ষার্থীকে ইংরেজির পরীক্ষার ক্ষেত্রে আগের চেয়ে অধিক নম্বর পেতে হবে। আইইএলটিএসে একজন শিক্ষার্থীকে বর্তমানের তুলনায় আরও বেশি নম্বর পেতে হবে। এছাড়া প্রথমবার অস্ট্রেলিয়ায় আবেদন করে বাতিল হলে দ্বিতীয়বার আবেদন করলে তার আবেদন যাচাই-বাছাইয়ে অধিক সময়ক্ষেপণ হবে।

এ বিষয়ে অস্ট্রেলিয়ার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ক্লেয়ার ও’নেইল এক সংবাদ ব্রিফিংয়ে বলেন, “আমাদের কৌশল হলো অভিবাসী ব্যক্তিদের গ্রহণের পরিমাণকে স্বাভাবিক পর্যায়ে নামিয়ে আনতে হবে। এটি কেবল অভিবাসীর সংখ্যা, নির্দিষ্ট কোনো সময় বা আমাদের দেশে বর্তমানে অভিবাসীদের কারণে কী সমস্যার মুখোমুখি হচ্ছে, সে বিষয়ে নয়; এটা অস্ট্রেলিয়ার ভবিষ্যতের প্রশ্নেই করা হবে।”

এর আগে এই সপ্তাহের শুরুর দিকে অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী অ্যান্টনি অ্যালবানিজি  দেশটিতে অভিবাসীদের সংখ্যাকে সহনীয় মাত্রায় নামিয়ে আনার কথা বলেছিলেন।

অস্ট্রেলিয়ায় বর্তমানে প্রায় সাড়ে ছয় লাখ বিদেশি শিক্ষার্থী আছেন, যাদের অনেকেই দ্বিতীয় দফায় ভিসা নিয়ে দেশটিতে বাস করছেন। ২০২২-২৩ সালে রেকর্ড অভিবাসী অস্ট্রেলিয়ায় প্রবেশ করেছেন। নতুন এ সিদ্ধান্তের ফলে ২০২৫ সালের মধ্যে অভিবাসীদের সংখ্যা প্রায় এক-চতুর্থাংশে নেমে আসবে বলে আশা দেশটির সরকারের।

About

Popular Links