Thursday, May 23, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

ইসরায়েলি ‘গুপ্তচরের’ মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের দাবি ইরানের

জনশৃঙ্খলা বিঘ্নিত করার জন্য গোপন তথ্য সংগ্রহ করে মোসাদকে সরবরাহের কারণে ওই ব্যক্তিকে দোষী সাব্যস্ত করা হয়

আপডেট : ১৬ ডিসেম্বর ২০২৩, ০৮:৫১ পিএম

ইসরায়েলি গোয়েন্দা সংস্থা মোসাদের হয়ে কাজ করা এক “গুপ্তচরের” মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের দাবি করেছে ইরান।

ইরানের বিচার বিভাগের বার্তা সংস্থা “মিজান” জানিয়েছে, দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় সিস্তান-বালুচিস্তান প্রদেশের জাহেদান কারাগারে শনিবার (১৬ ডিসেম্বর) সকালে ওই ব্যক্তির মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়। গোপন নথিপত্র পাওয়ার পর তেহরান তার মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করেছে।

মিজান জানিয়েছে, “জনশৃঙ্খলা বিঘ্নিত করার জন্য গোপন তথ্য সংগ্রহ করে মোসাদকে সরবরাহের কারণে ওই ব্যক্তিকে দোষী সাব্যস্ত করা হয়।”

ইরানের ইসলামিক রেভলিউশনারি গার্ডস কর্পস (আইআরজিসি) এর সঙ্গে যুক্ত তাসনিম নিউজ এজেন্সি জানিয়েছে, মৃত্যুদণ্ডের সাজা পাওয়া ব্যক্তির বিরুদ্ধে মোসাদসহ নানা বিদেশি সংস্থার কাছে গোপনীয় নথি পাঠানোর অভিযোগ প্রমাণিত হয়েছে।

২০২২ সালের এপ্রিলে ইরানের গোয়েন্দা কর্মকর্তারা মোসাদের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে তিনজনকে গ্রেপ্তার করে৷ মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত ব্যক্তি তাদের মধ্যে একজন কিনা তা স্পষ্ট নয়৷

ইসরায়েল ও হামাসের মধ্য চলমান যুদ্ধের পরিপ্রেক্ষিতে মধ্যপ্রাচ্যে অস্থিরতার মধ্যে এমন পদক্ষেপ নিলো ইরান৷ ইরান ও ইসরায়েল সাম্প্রতিক বছরগুলোতে একে অপরের বিরুদ্ধে গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগ এনেছে।

২০১৫ সালে বিশ্ব বড় শক্তিগুলোর সঙ্গে তেহরানের পরমাণু চুক্তির কঠোর বিরোধিতা করে ইসরায়েল। এই চুক্তির মাধ্যমে ইরানের পরমাণু কর্মসূচিতে রাশ টানা হয় এবং দেশটির উপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার বিনিময়ে তেহরানকে আন্তর্জাতিক যাচাইয়ের মধ্য দিয়ে যেতে বাধ্য করা হয়৷

কিন্তু ইসরায়েলের যুক্তি, এই চুক্তিতে ইরানের পারমাণবিক কর্মসূচির ওপর দেওয়া নিষেধাজ্ঞাগুলো স্থায়ী ছিল না৷ সেই সঙ্গে ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচি বা সামরিক কার্যকলাপের সমাধান করতেও ব্যর্থ হয়েছে চুক্তিটি।

এর আগে পারমাণবিক কর্মসূচির সঙ্গে জড়িত ইরানের বিজ্ঞানীদের হত্যার জন্য ইসরায়েলকে দায়ী করেছিল তেহরান। ইসরায়েলের একাধিক পারমাণবিক অস্ত্র রয়েছে বলে ধারণা করা হয়, তবে আনুষ্ঠানিকভাবে তারা কখনো এটি স্বীকার করেনি।

About

Popular Links