Monday, May 27, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

যুদ্ধ বন্ধের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান ইসরায়েলের

  • হামাসের হাতে বন্দি জিম্মিদের স্বজনরা নেতানিয়াহুর বাড়ির বাইরে বিক্ষোভ করছেন
  • তবে এসবেও কঠোর অবস্থানে রয়েছেন ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু
আপডেট : ২২ জানুয়ারি ২০২৪, ১০:৪৮ পিএম

যুদ্ধ বন্ধ, জিম্মি মুক্তি নিয়ে হামাসের প্রস্তাব সরাসরি নাকচ করলেন ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু। এছাড়া হামাসকে পুরোপুরি পর্যুদস্ত না করা পর্যন্ত সামরিক অভিযান অব্যাহত রাখা হবে বলেও জানান তিনি। কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরা এক সংবাদে এ তথ্য জানিয়েছে। 

এক বিবৃতিতে বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু বলেন, “আমাদের জিম্মিদের মুক্তি দেওয়ার বিনিময়ে হামাস যুদ্ধ বন্ধ করা, গাজা থেকে ইসরায়েলি সেনা প্রত্যাহার করা এবং সব খুনি-ধর্ষকদের মুক্তি দাবি করছে। গাজায় হামাসকে অক্ষত অবস্থায় ছেড়ে যেতে বলছে তারা।”

নেতানিয়াহু বলেন, “হামাসের দানবদের এই আত্মসমর্পণের পরিভাষা আমি পুরোপুরিভাবে প্রত্যাখ্যান করছি। আমরা এই শর্ত মানলে আমাদের নাগরিকদের নিরাপত্তার নিশ্চয়তা দিতে পারব না। ঘরছাড়া মানুষদের তাদের ঘরে নিরাপদে ফিরতে দিতে পারব না। আরেকটি ৭ অক্টোবর তখন কেবল সময়ের ব্যাপার হয়ে দাঁড়াবে।”

এর আগে গতবছর নভেম্বরে যুক্তরাষ্ট্র,কাতার এবং মিশরের মধ্যস্থতায় ইসরায়েল এবং হামাসের মধ্যে হওয়া চুক্তির আওতায় হামাসের হাতে ইসরায়েল থেকে ধরে এনে গাজায় জিম্মি করা ২৪০ জনের মধ্য থেকে ১০০’রও বেশি জনকে মুক্তি দেওয়া হয়েছে ইসরায়েলি জেলে বন্দি থাকা ২৪০ ফিলিস্তিনির বিনিময়ে।

তখন থেকেই বাকি ১৩৬ জিম্মির মুক্তির জন্য ক্রমবর্ধমান চাপের সম্মুখীন হয়ে আসছেন নেতানিয়াহু। জিম্মিরা এবং নিখোঁজ পরিবারগুলোর ফোরাম এক বিবৃতিতে এই দাবি করেছে যে, “বেসামরিক নাগরিক, সেনা এবং ২০২৩ সালের ৭ অক্টোবরে হামাসের হাতে অপহৃত হওয়াদের ইসরায়েল পরিত্যাগ করবে না সেটি নেতানিয়াহুকে স্পষ্ট করে বলতে হবে।”

জিম্মিদের স্বজনরা নেতানিয়াহুর বাড়ির বাইরে বিক্ষোভ করে জিম্মি মুক্তির ব্যাপারে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানিয়েছে। তারা দ্রুতই জিম্মিদের প্রত্যাবর্তন চাইছে।

About

Popular Links