Thursday, May 23, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

চিলিতে দাবানলে ৫১ জনের মৃত্যু

উপকূলীয় পর্যটন শহর ভিনা ডেল মার আশেপাশের অঞ্চল সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে

আপডেট : ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ০২:৪৮ পিএম

চিলিতে বনে দাবানলের ঘটনায় অন্তত ৫১ জনের মৃত্যু হয়েছে। শনিবার (৩ ফেব্রুয়ারি) দেশটির কর্তৃপক্ষ এ তথ্য জানিয়েছে। চিলির প্রায় এক মিলিয়ন বাসিন্দার বসবাসের এলাকা ভালপারাইসো অঞ্চলের আকাশ কালো ধোঁয়ায় ছেয়ে গেছে। ওই অঞ্চলে হেলিকপ্টার ও ট্রাক ব্যবহার করে আগুন নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করছেন দমকলকর্মীরা।

চিলির কর্তৃপক্ষ জানায়, উপকূলীয় পর্যটন শহর ভিনা ডেল মার আশেপাশের অঞ্চল সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। উদ্ধারকারা ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় পৌঁছানোর চেষ্টা করছেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ক্যারোলিনা তোহা বলেছেন, “সড়কে পাঁচটি মরদেহ পাওয়া গেছে। এই সংখ্যা আরও বাড়তে পারে। এরমধ্যে ভালপারাইসোর অবস্থা সবচেয়ে নাজুক।”

২০১০ সালের ভূমিকম্পে ৫০০ জন নিহতের ঘটনার পরে চিলিতে এটিই সবচেয়ে বড় বিপর্যয় বলে অভিহিত করেন তিনি।

প্রেসিডেন্ট গ্যাব্রিয়েল বোরিক টেলিভিশনে সম্প্রচারিত ভাষণে জাতির উদ্দেশে বলেন, “পরিস্থিতি সত্যিই খুব কঠিন।”

গ্রীষ্মকালে চিলিতে দাবানল নতুন নয়। ২০২৩ সালে রেকর্ড তাপপ্রবাহে প্রায় ২৭ জনের মৃত্যু হয়েছিল। ওই সময় ৪০০,০০০ হেক্টর (৯৯০,০০০ একর) কৃষি জমি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছিল।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, “এবারে দাবানলের এলাকা কম। তবে দাবানল ছড়িয়ে পড়ছে। শুক্রবার ও শনিবারের মধ্যে দাবানলে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা ৩০,০০০ থেকে বেড়ে ৪৩,000 হেক্টর (১১০,০০০ একর) হয়েছে।”

তোহা বলেন, “কর্তৃপক্ষের সবচেয়ে বড় উদ্বেগের বিষয় হলো, কিছু সক্রিয় দাবানল শহরাঞ্চলের খুব কাছাকাছি চলে এসেছে। ফলে এতে বাসিন্দারা, বাড়িঘর ও নাগরিক সুবিধা মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে।”

About

Popular Links