Friday, June 14, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

১৪ বছর ধরে ‘মিম ডগ’ খ্যাত কুকুর কাবোসুর মৃত্যু

শিবা ইনু প্রজাতির এই কুকুর ক্রিপ্টোকারেন্সি ডগিকয়েনেরও প্রতীক

আপডেট : ২৪ মে ২০২৪, ০৫:৪৯ পিএম

বিশ্ব জুড়ে এটির পরিচিতি। এটিকে নিয়ে তৈরি হয়েছে বহু মিম। গত ১৪ বছর ধরে বিপুল জনপ্রিয়তা পাওয়া সেই ‘‘মিম ডগ’’ খ্যাত জনপ্রিয় কুকুর কাবোসু মারা গেছে।

শিবা ইনু প্রজাতির এই কুকুর ক্রিপ্টোকারেন্সি ডগিকয়েনেরও প্রতীক। এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

শুক্রবার ডগিকয়েনের এক্স হ্যান্ডলে এই দুঃসংবাদ শেয়ার করা হয়। এতে জানানো হয়, কাবোসু তার প্রভুর কোলে শান্তিপূর্ণ ভাবে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেছে।

পোস্টে লেখা হয়, ‘‘এই একটি কুকুর সারা বিশ্বে যে প্রভাব ফেলেছে তা অপরিসীম। ও ছিল এমন একজন যে কেবল সুখ ও অনন্ত ভালোবাসাই বুঝত। দয়া করে ওর এবং ওর পরিবারের এই স্পিরিটকে আপনাদের হৃদয়ে রেখে দিন।’’

২০১০ সালে উদ্ধারের পর এটিকে দত্তক নেন টোকিওর পূর্ব সাকুরার শিক্ষিকা মিসেস সাটো। তবে এটির আসল বয়স অজানা।

তিনিই প্রথম কুকুরের ছবিটি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রকাশ প্রকাশ করেন। সেটি মুহূর্তেই ভাইরাল হয়। এছাড়াও ক্রিপ্টোকয়েনও কাবোসুর জনপ্রিয়তা রয়েছে। এমনকি এক্স-এর প্রধান ইলন মাস্কও ওই কুকুরের ছবি নিজের ওয়ালে শেয়ার করেছিলেন। 

২০২২ সালে লিউকোমিয়া ও যকৃতের অসুখ ধরা পড়েছিল কাবোসুর। দুবছর পেরতে না পেরোতেই পৃথিবী থেকে বিদায় নিল ‘‘বিশ্বের সবচেয়ে সুখী কুকুর’’।

কাবোসুর লালনপালন করা মিসেস সাটো জানিয়েছেন, আগামী রবিবার ২৬ মে নারিতা সিটিতে কাবোসুর উদ্দেশে একটি ‘‘বিদায় যাত্রা’’ আয়োজন করা হবে।

তিনি জানান, ঘুমের মধ্যেই প্রাণ হারিয়েছে কাবোসু। কিন্তু এখনও তিনি অনুভব করতে পারছেন কাবোসু এখনও হাসছে, নিজের লেজ হারছে এবং তার গা ঘেঁষেই দাঁড়িয়ে রয়েছে। যেমনটা সে এতকাল করে এসেছে।

এদিকে এই কুকুরের মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন অনেকেই।

About

Popular Links