• শনিবার, অক্টোবর ১৯, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১২:৩৮ রাত

বেলারুশে ‘আমার সোনার বাংলা’ বইয়ের ২য় সংস্করণ উন্মোচিত

  • প্রকাশিত ১০:২০ রাত আগস্ট ৩১, ২০১৯
আলেকজান্ডার কারলুকেভিচ-মুজাহিদুল ইসলাম
গত সপ্তাহে বেলারুসের মিনস্কে জাতীয় ইতিহাস জাদুঘরে 'আমার সোনার বাংলা'র মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে বইটির দুই সংকলনকারী বেলারুশের তথ্যমন্ত্রী ও দেশটির লেখক ইউনিয়নের সদস্য আলেকজান্ডার কারলুকেভিচ (ডানে) এবং বাংলাদেশি নাগরিক মুজাহিদুল ইসলাম (বামে)। ছবি: সংগৃহীত

ত সপ্তাহে বেলারুসের মিনস্কে জাতীয় ইতিহাস জাদুঘরে এটির উন্মোচন করা হয়

বেলারুশে বিশ্বের ৫০ ভাষায় অনুবাদ করা ‘আমার সোনার বাংলা’ বইটির দ্বিতীয় সংস্করণ উন্মোচিত হয়েছে। গত সপ্তাহে বেলারুসের মিনস্কে জাতীয় ইতিহাস জাদুঘরে এটির উন্মোচন করা হয়।

বইয়ের সংকলনকারী হলেন বেলারুশের তথ্যমন্ত্রী ও দেশটির লেখক ইউনিয়নের সদস্য আলেকজান্ডার কারলুকেভিচ এবং বাংলাদেশি নাগরিক মুজাহিদুল ইসলাম। বৃহস্পতিবার প্রকাশিত এক বিবৃতিতে আলেকজান্ডার কারলুকেভিচ বলেন, "এই প্রকাশনাটি বেলারুশ ও বাংলাদেশের মধ্যে এক ধরনের কূটনৈতিক সাংস্কৃতিক সেতু।" এছাড়াও কারলুকেভিচ বইটিতে শিল্পী জয়নুল আবেদিনের আঁকা চিত্রের প্রতি বিশেষ মনোযোগ প্রদর্শন করেন।

এসময় তিনি কেবল কূটনৈতিক ও বাণিজ্যিক সম্পর্ক নয়, দেশসমূহের মধ্যে সাংস্কৃতিক সম্পর্কের ওপরও গুরুত্বারোপ করেন।

উল্লেখ্য, এর আগে ‘আমার সোনার বাংলা’ বইটি চলতি বছরের শুরুতে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে ইয়াকুব কোলস প্রিন্টিং হাউজ প্রকাশ করে। প্রথম সংস্করণের তুলনায় বইটির অনুবাদ ভাষার সংখ্যা আরও বাড়ানো হয়েছে।

বইটিতে ইউক্রেনিয়ানসহ বিশ্বের বিভিন্ন জাতির ৫০ ভাষায় বিখ্যাত ভারতীয় কবিতার অনুবাদ মুদ্রণ করা হয়েছে, যার মধ্যে বাংলাদেশের জাতীয় সংগীতও রয়েছে।

বাংলাদেশ স্বাধীনতার পরে নোবেল বিজয়ী রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ‘আমার সোনার বাংলা’ কবিতার প্রথম ১০ লাইনকে জাতীয় সংগীত হিসেবে স্বীকৃতি দেয়। কবিতাটি ইংরেজি থেকে তাবাসরান, পোলিশ থেকে সোয়াহিলি ভাষায় অনুবাদ করা হয়েছে। বিখ্যাত কবি নাউম হাল্পেরোভিচ এবং মিকোলা মেটলিটস্কি সহ অন্যান্য কবিরা বেলারুশিয়ান ভাষায় রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের কবিতাটি অনুবাদ করেন।