Sunday, May 26, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

স্বভাবে মিল রয়েছে ইঁদুর ও মানুষের

“পরীক্ষার ফলাফলে ইঁদুর এবং মানুষকে প্রায় একই ধরনের আচরণ করতে দেখা গেছে।”

আপডেট : ১৩ জুলাই ২০১৮, ১১:২৫ পিএম

অর্থনীতিবিদরা জানেন, মানুষ কোনো কিছুর পেছনে একবার অর্থ ও সময় ব্যয় করলে, তা থেকে নিজেকে সড়িয়ে আনার বিষয়টি কতোটা কষ্টকর। এমনকি, সেটি যদি ব্যর্থও হয়, তাহলেও। 

এদিকে, সাম্প্রতিক এক গবেষণার বরাতে জানা সম্ভব হয়েছে নতুন তথ্য। এ ধরনের দুর্বলতা শুধু মানুষের মধ্যেই নয়, ইঁদুরের মধ্যেও রয়েছে। বৃহস্পতিবার (১২ জুলাই) যুক্তরাষ্ট্রের সায়েন্স জার্নালে গবেষণাটি প্রকাশিত হয়েছে বলেই জানিয়েছে বার্তা সংস্থা এএফপি।

এএফপি’র তথ্য অনুযায়ী, বেশ অনেকদিন ধরেই বিষয়টি নিয়ে গবেষণা করা হচ্ছিল। সম্প্রতি ইউনিভার্সিটি অফ মিনেসোটার ভিন্ন তিনটি স্নায়ুবিজ্ঞান ও মনোবিজ্ঞান গবেষণাগারে দুই প্রজাতির ইঁদুর এবং মানুষের উপর এ সংক্রান্ত বেশ কয়েকটি পরীক্ষা করা হয়।

এ প্রসঙ্গে গবেষকদের একজন ও ইউনিভার্সিটি অফ মিনেসোটার স্নায়ুবিজ্ঞানের অধ্যাপক ডেভিড রেডিশ বলেন, “পরীক্ষার ফলাফলে ইঁদুর এবং মানুষকে প্রায় একই ধরনের আচরণ করতে দেখা গেছে।”

পরীক্ষার জন্য, ইঁদুরগুলোকে এমন স্থানে রাখা হয়েছিল, যার চার কোণায় নির্দিষ্ট সময় পরপর খাবার আসবে এবং সুনির্দিষ্ট শব্দের মাধ্যমে ইঁদুরগুলো বুঝতে পারবে খাবার এসেছে, এজন্য অবশ্য আগেই প্রাণীগুলোকে শব্দের ব্যাপারটি শিখিয়ে নেওয়া হয়েছিল। খাবার আসার শব্দ হওয়ার পর, যেসব আগ্রহী প্রাণী খাবারের জন্য এগিয়ে যেত, সেগুলোকে ১ থেকে ৩০ সেকেন্ড কাউন্টডাউন সময়সীমায় অপেক্ষা করানো হত।

মানুষের ক্ষেত্রে পরীক্ষাটি করা হয়েছিল ভিডিও’র মাধ্যমে। প্রাকৃতিক দৃশ্য থেকে শুরু করে বাইক দুর্ঘটনার মতো বিভিন্ন ভিডিও রাখা হয়েছিল আগ্রহীদের জন্য এবং ডাউনলোড বারের মাধ্যমে ভিডিও দেখার জন্য অপেক্ষা করানো হয়েছে তাদের।

দুটি পরীক্ষার ক্ষেত্রেই দেখা গেছে, অপেক্ষারত সময়ে বিরক্তবোধ করলেও, অপেক্ষা থামায়নি কোনো প্রাণীই।  

এ প্রসঙ্গে রেডিশ বলেন, “বিষয়টি ছিল অনেকটা মানুষের লাইনে দাঁড়িয়ে অপেক্ষা করার মতো। একবার লাইনে দাঁড়ালে যত সময়ই পার হোক না কেন, কাজ শেষ হওয়া পর্যন্ত লাইনে ছাড়তে চান না মানুষ।”


About

Popular Links