Saturday, May 25, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

শরীর থেকে নিকোটিন দূর করে যেসব খাবার

আপনি যদি ধূমপান ছেড়েও দেন নিকোটিনের প্রভাব আপনার দেহে অনেক বছর পর্যন্ত রয়ে যাবে

আপডেট : ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০৬:৫৯ পিএম

সিগারেটের মূল উপাদান নিকোটিন। এছাড়া নিকোটিন মূলত তামাক এবং তামাকজাত বিভিন্ন দ্রব্য বা জর্দা এ পাওয়া যায়। নিকোটিন আমাদের দেহের রক্তচাপ বাড়িয়ে দেয় এবং ফুসফুসেরও মারাত্মক ক্ষতি করে। এমনকি যদি আপনি যদি ধূমপান ছেড়েও দেন নিকোটিনের প্রভাব আপনার দেহে অনেক বছর পর্যন্ত রয়ে যাবে। 

তবে এমন কিছু খাবার আছে, যা খেলে শরীর থেকে সহজেই নিকোটিন বের হয়ে যাবে। জেনে নিন সেই খাবার সম্পর্কে। 

গাজরের রস

সুস্বাস্থ্যে গাজরের গুণ অতুলনীয়। গাজরের রস কিংবা গাজর শ্বাস নালী থেকে নিকোটিন অনেকটাই কমিয়ে আনতে পারে। আপনার যদি গাজর খেতে ভালো না লাগে তাহলে আপনি সেটা জুস করে খেতে পারেন। গাজরে রয়েছে প্রচুর এ, সি, কে এবং বি-যা নিকোটিন হ্রাসে ব্যপক কার্যকরী। 

পানি

নিকোটিনের দ্বারা শরীরের অভ্যন্তরের যে ক্ষতি হয় তার বিরুদ্ধে লড়তে পারে পানি। নিকোটিন শরীরকে পানিশূন্য করে! তাই প্রতিদিন কমপক্ষে আট গ্লাস পানি পান করলে শরীর রিহাইড্রেট এবং মেটাবোলিজম বৃদ্ধি পাবে। যার ফলে শরীর থেকে বিষাক্ত দ্রব্য বের হয়ে যায়। এছাড়াও আদা, লেবু, ডালিম, কিউই খেলে নিকোটিনের ক্ষতিকর প্রভাব থেকে মুক্ত থাকা যায়। 

ব্রোকলি

ব্রোকলিতে উচ্চ মাত্রার ভিটামিন বি-৫ ও ভিটামিন সি থাকে। ভিটামিন বি শরীরের অনেক গুরুত্বপূর্ণ কাজ নিয়ন্ত্রণ করে। ব্রোকলি খেলে মেটাবোলিজম বৃদ্ধি পায় এবং ফুসফুসকে টক্সিন থেকে রক্ষা করে। ব্রোকলিতে NRF2 জিন থাকে৷ যা ফুসফুসের কোষকে আক্রমণ থেকে রক্ষা করে। 

কমলা

কমলা বলশালী সাইট্রাস ফল। কমলায় থাকা ভিটামিন সি নিকোটিন হ্রাস করে। কমলা খেলে ভিটামিন সি-এর স্তর পরিপূর্ণ হয় এবং স্ট্রেস ও উদ্বিগ্নতা কমে। 

পালংশাক

গবেষণায় দেখা গেছে, ধূমপায়ীদের ফলিক অ্যাসিডের সরবরাহ কম থাকে। তাই পালংশাক খেতে পারেন, কারণ এতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ফলিক অ্যাসিড। এছাড়া পালংশাকের ভিটামিন ও অন্যান্য প্রয়োজনীয় পুষ্টি উপাদান যা স্বাস্থ্যের ভারসাম্য রক্ষা করে। পালং শাক খেলে স্মোকিংয়ের স্বাদ নষ্ট হয়! তাই ধূমপানের অভ্যাস ত্যাগ করতে চাইলে পালংশাক খেতে হবে৷ 

কিউই ফল

কিউই আমাদের দেশে খুব বেশি পাওয়া না গেলেও আজকাল এই ফলের সঙ্গে অনেকেই পরিচিত। বড় বড় সুপারশপগুলোতে ইদানিং এই ভিনদেশি ফলটি দেখতে পাওয়া যায়। কিউই শুধু দেখতেই সুন্দর না, গুণেও ভরপুর। কিউই ফলে আছে প্রচুর পরিমানে ভিটামিন সি আর অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। যা আমাদের শরীরের জন্য দারুণ উপকারি। ভিটামিন সি আমাদের শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে। কিউই নিকোটিন কমিয়ে আনতে কার্যকরী একটি ফল।

About

Popular Links