• বুধবার, ফেব্রুয়ারি ১৯, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১১:১৫ রাত

নর্তকীপ্রেমী তুর্কি বক্তা গ্রেফতার

  • প্রকাশিত ০২:৩৪ দুপুর জুলাই ১২, ২০১৮
  • সর্বশেষ আপডেট ০৪:১৯ বিকেল জুলাই ১২, ২০১৮
unnamed-1531384306847.jpg
নর্তকী দ্বারা পরিবেষ্টিত আদনান ওকতার

তার বিরুদ্ধে অপরাধী গোষ্ঠী গড়ে তোলা, প্রতারণা ও যৌন হয়রানির অভিযোগ আনা হয়েছে।  

তিনি টেলিভিশনে ইসলাম বিষয়ক বক্তব্য দেন। টক শোতেও আলোচনা করেন ইসলামী মূল্যবোধ নিয়ে। আর মাঝে মাঝে গাঢ় মেকআপ করা সুন্দরী নারীদের সঙ্গে নাচেনও। এদেরকে তিনি ডাকেন ‘বিড়ালছানা’ বলে। এসব বিড়ালছানা তথা ‘ড্যান্সিং গার্ল’দের সঙ্গে অতি ঘনিষ্ঠতার অভিযোগেই তুরস্কের পুলিশ গ্রেফতার করল আদনান ওকতার নামে এই ইসলামী বক্তাকে। 

হারুন ইয়াহিয়া নামেও পরিচিত আদনান ওকতারকে ইস্তাম্বুলের এশীয় দিকে অবস্থিত তার নিজ বাসা থেকে পুলিশ গ্রেফতার করে। তার বিরুদ্ধে অপরাধী গোষ্ঠী গড়ে তোলা, প্রতারণা ও যৌন হয়রানির অভিযোগ আনা হয়েছে।  

তুরস্ক জুড়ে পরিচালিত পুলিশের এই অভিযানে আরও ৮০ জনকে গ্রেফতার করা হয়। ২৩৫ জনের তালিকা করা ওয়ারেন্টের ভিত্তিতে এই গ্রেফতার অভিযান চলছে।

এই তালিকায় ওকতারের ১০৬ জন নারী সঙ্গীও আছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। 

১৯৯০ সালে ওকতার প্রথম মিডিয়ার আলোচনায় আসেন যখন তার শিষ্যদের সঙ্গে একাধিক যৌন কেলেঙ্কারির ঘটনা ফাঁস হয়। 

গত ফেব্রুয়ারিতে তুরস্ক কর্তৃপক্ষ ওকতারের একটি টেলিভিশন অনুষ্ঠান বাতিল করে। সেখানে ধর্মীয় আলোচনার সঙ্গে নাচকে মিশিয়েছিলেন তিনি। এর মাধ্যমে লিঙ্গ বৈষম্য করে নারীদের অবমাননা করছেন, এমন অভিযোগ আনা হয়।