• শুক্রবার, সেপ্টেম্বর ২০, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৯:০১ রাত

হেড নেক ক্যান্সারের মূল কারণ তামাক

  • প্রকাশিত ০৪:০৩ বিকেল জুলাই ২৮, ২০১৮
cancer
হেডনেক ক্যান্সারের মূল কারণ তামাক

হেড নেক ক্যান্সারের প্রধানতম কারণ হচ্ছে ধূমপান, তামাক গ্রহণ, বিটামিন বি- এর ঘাটতি, হিউম্যান প্যাপিলোমা ভাইরাস এর মতো বিষয়।

মানব দেহের  ৩০ ভাগ ক্যান্সারই হেড নেক ক্যান্সার। জেনে নিন কেন এই রোগ হয়-

হেড নেক ক্যান্সার কি? 

ধূমপান, মদপান, জর্দা সেবন হেডনেক ক্যান্সারের কারণ। নাক, মুখ, খাদ্যনালি, শ্বাসনালি, থাইরয়েড গ্রন্থি, লালাগ্রন্থি ক্যান্সারে আক্রান্ত হলে সেগুলোকে হেড নেক ক্যান্সার বলে। হেডনেক ক্যান্সার খুব সহজেই দেখা যায় বা বোঝা যায় এবং খুব প্রাথমিক পর্যায়ে ধরা পড়ে। সাইনাসে ক্যান্সার হলে নাক থেকে অস্বাভাবিক রক্ত মিশ্রিত শ্লেষ্মা হতে পারে। দাঁত নড়বড়ে হয়ে যেতে পারে। দাঁত পড়তে পারে। মুখ গহ্বরে ক্ষত হতে পারে। দুই সপ্তাহ বা ততোধিক সময়ে ক্ষত শুকাবে না। খাবার খেতে ও নিশ্বাস নিতে কষ্ট হবে। কণ্ঠস্বরের পরিবর্তন হবে। থাইরয়েড ক্যান্সার হলে গলা ফুলে যাবে। লালাগ্রন্থিতে ক্যান্সার হলে মুখের এক পাশ ফুলে যাবে। 

হেড নেক ক্যান্সারের বিষয়ে এনটিভির অনুষ্ঠানে পরামর্শ দিয়েছেন কথা বলেছেন ডা. বেলায়েত হোসেন সিদ্দিকী ও অধ্যাপক ডা. মতিউর রহমান মোল্লা।

শরীরে যেসব ক্যান্সার হয়, এর মধ্যে ৩০ ভাগ ক্যান্সারই হেডনেক ক্যান্সার। হেডনেক মূল কারণ  ক্যান্সারের তামাক। এ ছাড়া আরো কিছু কারণ রয়েছে।

হেড নেক ক্যান্সার প্রসঙ্গে ডা. বেলায়েত হোসেন সিদ্দিকী জানান, “মানব শরীরে যে ক্যান্সার, তার ৩০ থেকে ৩২ ভাগ  ক্যান্সারই হেড নেক ক্যান্সার। আমাদের দেশে বেশি হেডনেক ক্যান্সারের  প্রবণতা রয়েছে”। 

রোগের লক্ষণ সম্পর্কে অধ্যাপক ডা. মতিউর রহমান জানিয়েছেন, “হেড নেক ক্যান্সারের মধ্যে ওরাল ক্যান্সার অনেকটা অংশ জুড়ে রয়েছে। প্রায় বলা যায়, ৭০ ভাগ  ক্যান্সার ওরাল ক্যান্সার। মুখ গহ্বরের ক্যান্সারের ক্ষেত্রে দেখা যায় চিকে, বাক্কাল মিউকোসাতে, জিহ্বায়, মাউথ প্যালেটে এবং মাড়িতে হতে পারে। মুখের যদি ভাঙা দাঁত থাকে, ঘা হয়, সেখান থেকে হতে”। 

এ ক্যান্সার শুরুতেই ধরা পড়লে সম্পূর্ণ নিরাময় করা সম্ভব। 

সূত্র: এনটিভিবিডি