• শুক্রবার, সেপ্টেম্বর ২০, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৯:০১ রাত

গেলেন গরু খুঁজতে, ফিরলেন হাত হারিয়ে!

  • প্রকাশিত ০৫:৫৯ সন্ধ্যা সেপ্টেম্বর ৩, ২০১৮
প্রতীকী ছবি
প্রতীকী ছবি

গরুর সন্ধান তো মেলেইনি, বরং একটি হাত হারিয়ে ভর্তি হয়েছেন হাসপাতালে।

কয়েকদিন ধরে নিজের পোষা গরু খুঁজে পাচ্ছিলেন না প্রেম নারায়ণ নামের এক ব্যক্তি। চালিয়ে যাচ্ছিলেন খোঁজাখুঁজি। এর এক পর্যায়ে পড়লেন চরম বিপত্তিতে। গরুর সন্ধান তো মেলেইনি, বরং একটি হাত হারিয়ে ভর্তি হয়েছেন হাসপাতালে।

গতকাল রোববার ভারতের মধ্যপ্রদেশ রাজ্যে ঘটনাটি ঘটেছে। ইতিমধ্যেই অভিযুক্ত দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। আরও তিন জনের খোঁজ চলছে। 

রাজ্যের রাইসেন জেলার সুলতানপুর থানা এলাকার পিপলওয়ালি গ্রামের বাসিন্দা প্রেম নারায়ণ।

ভারতের বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়, গত শুক্রবার প্রেমের একটি গরু হারিয়ে যায়। দুদিন ধরে তিনি গরুটি খুঁজছিলেন। গতকাল গ্রামের বাসিন্দা সত্তু যাদবের বাড়িতে গিয়ে গরুর বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করেন তিনি। হারানো গরুর বিষয়ে জিজ্ঞাসা করতেই ক্ষেপে যান সত্তু। শুরু হয় কথা কাটাকাটি।

এর এক পর্যায়ে সত্তুর পরিবারের পাঁচ জন সদস্য প্রেকে একটি গাছের সঙ্গে বেঁধে মারধর করেন। তার একটি হাতও কেটে ফেলা হয়। ওই অবস্থায় প্রেমকে ফেলে রেখে পালিয়ে যান তারা। 

পরে রক্তাক্ত অবস্থায় প্রেমকে দেখে পুলিশে খবর দেন এক ব্যক্তি। পুলিশ এসে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়। তার অবস্থা সঙ্কটজনক বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। 

সুলতানপুর পুলিশের কর্মকর্তা রাজেন্দ্র কুমার ধ্রুবে জানিয়েছেন, পুলিশ গিয়ে প্রেমকে উদ্ধার করে। সত্তু যাদব ও রাজপাল যাদব নামের দুই ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। সত্তুর পরিবারের বাকি তিন জন পলাতক রয়েছেন।