• রবিবার, মে ২৬, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১২:১৩ দুপুর

হাতির পাড়া খেয়ে সিংহের পেটে গেল চোরাশিকারী!

  • প্রকাশিত ০৩:৫০ বিকেল এপ্রিল ৮, ২০১৯
হাতি
প্রতীকী ছবি (গার্ডিয়ান)

কেবল মাথার খুলি আর ট্রাউজার ছাড়া আর কিছুই উদ্ধার করা যায়নি ওই শিকারির

প্রায় ২০ হাজার কিলোমিটার এলাকাজুড়ে অবস্থিত দক্ষিণ আফ্রিকার ন্যাশনাল ক্রগার পার্কের গভীর অরণ্যে গণ্ডার শিকারের উদ্দেশ্যে গিয়েছিলেন একদল চোরাশিকারী। তবে ভাগ্যের ফেরে শিকার হয়ে ফিরলেন সেই শিকারীদেরই একজন। তবে গণ্ডার নয় হাতির পায়ে চাপা পড়েন, এরপরই নাকি তিনি সিংহের শিকারে পরিণত হন এমনটিই জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদপত্র গার্ডিয়ান।

ঘটনাটি মূলত উঠে এসেছে, নিহত ওই পোচারকারীর স্ত্রীর অভিযোগের মধ্য দিয়ে। নিহতের স্ত্রীকে অন্যান্য পোচারকারীরা স্বামীর মৃত্যুর সংবাদ দেয়। এরপর তার স্ত্রী পুলিশকে খবর দিলে বেরিয়ে আসে চাঞ্চল্যকর এ তথ্য। চোরাশিকারীর সহযোগীরা তার স্ত্রীকে হাতির কবলে পড়ে নিহত হওয়ার সংবাদ দেন।

চোরাশিকারীদের দেওয়া তথ্যানুযায়ী, হঠাৎ করেই শিকারীকে হাতিটি হামলা করে হত্যা করে। এরপর তার মরদেহ বাকি পোচারকারীরা পার্কটির রাস্তার রেখে আসে যাতে পরবর্তীতে খুঁজে পাওয়া যায় । এরপর শুরু হয় খোঁজাখুঁজি। গত বুধবার ঐ এলাকায় তন্নতন্ন করে তল্লাশি চালিয়েও তাকে আর খুঁজে পাননি দক্ষিণ আফ্রিকার ন্যাশনাল পার্কের এয়ার উইংয়ের ক্রুসহ একটি অনুসন্ধান দল। পরে বৃহস্পতিবার আবারো খুঁজতে যেয়ে পার্কের কুমির সেতু এলাকা থেকে কেবল তার মাথার খুলি ও ট্রাউজার উদ্ধার করে পুলিশ ও পার্ক কর্তৃপক্ষ।

এ প্রসঙ্গে পার্কটির ব্যবস্থাপনা নির্বাহী গ্লেন ফিলিপস বলেন, “অবৈধভাবে এবং পায়ে হেঁটে ক্রুগার ন্যাশনাল পার্ক প্রবেশ করা বুদ্ধিমানের বিষয় নয়, এতে অনেক বিপদ রয়েছে এবং এই ঘটনাটি এরই প্রমাণ।"

এদিকে, অভিযুক্ত বাকি চার শিকারীকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে এক বিবৃতিতে জানিয়েছে ক্রুগার ন্যাশনাল পার্ক কর্তৃপক্ষ।বিবৃতিতে দেওয়া তথ্যানুযায়ী, অভিযুক্তরা শুক্রবার পর্যন্ত পার্ক কর্তৃপক্ষের হেফাজতে থাকবে। এদিকে, ওই পশুপাচারকারীদের মৃত্যু ও অভিযুক্তদের বিষয়ে তদন্ত শুরু করেছে বলেও বিবৃতিটিতে জানিয়েছে তারা।