• রবিবার, মে ২৬, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১২:১৩ দুপুর

শাশুড়ির 'যন্ত্রণা' থেকে বাঁচতে মাকড়সায় ভরসা!

  • প্রকাশিত ০৪:১৪ বিকেল মে ১৬, ২০১৯
টারান্টুলা মাকড়সা
টারান্টুলা সংগৃহীত

শাশুড়িকে বাড়ির ত্রিসীমানা থেকে দূরে রাখার প্রয়োজন না হলে তিনি নাকি এমনটা করতেন না।

শ্বশুড়বাড়ির লোকজনকে তার বেশ 'বিরক্তিকর' মনে হয়, বিশেষ করে শাশুড়িকে। তাই তার থেকে দূরত্ব বজায় রেখে নিজের মতো করে বাঁচতে এক অদ্ভুত পন্থার আশ্রয় নিয়েছেন এক চীনা নাগরিক। শাশুড়ির ভয়ঙ্কর মাকড়সা ভীতি'র সুযোগকে কাজে লাগিয়ে বিষাক্ত প্রজাতির 'টারান্টুলা' মাকড়সা পুষতে শুরু করেন তিনি।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম রেডিট-এ তিনি নিজেই জানান এমন তথ্য। তার মতে, এগুলো দারুণ! তবে শাশুড়িকে বাড়ির ত্রিসীমানা থেকে দূরে রাখার প্রয়োজন না হলে তিনি নাকি এমনটা করতেন না।

ভাইরাল হওয়া ওই পোস্টে তিনি দাবি করেছেন, হুটহাট কিছু না জানিয়েই বাড়িতে চলে আসতেন তার শাশুড়ি। এতে তার শান্তি বিঘ্নিত হতো। স্ত্রীকে কিছু না বলে তিনি বিষয়টা এড়িয়ে যেতেন। একদিন ঘরের কোণে বসা একটা মাকড়সা দেখে ভয়ে পাওয়া দেখে ক্রুর বুদ্ধি খেলে যায় তার মাথায়। মাকড়সা দিয়েই শাশুড়িকে 'শায়েস্তা' করার বুদ্ধি আঁটেন তিনি।

তিনি জানান, “শ্বশুড়বাড়ির লোকজন বিরক্তিকর। শ্বশুড়কে কোনোভাবে মেনে নেওয়া সম্ভব হলেও, শাশুড়ি একেবারেই অসহ্য। যাই হোক, তিনি আবার মাকড়সায় ভয় পান। মাকড়সা দেখলে এমন প্রতিক্রিয়া দেখান যেন তিনি ভালুক দেখেছেন। এটা দেখেই আমার মাথায় তার হুটহাট আসা-যাওয়া আটকানোর বুদ্ধি আসে।”

বাড়িতে টারান্টুলা মাকড়সা আনার আগে স্ত্রীকে জিজ্ঞেস করে নিলেও কারণ সম্পর্কে কিছুই বলেননি তিনি।