• মঙ্গলবার, অক্টোবর ১৫, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১২:৪৮ রাত

‘অতিরিক্ত চিনি খাওয়া ধূমপানের মতোই ক্ষতিকর’

  • প্রকাশিত ১২:৫৬ দুপুর জুন ৭, ২০১৯
চিনি
অতিরিক্ত চিনিজাতীয় খাবার স্বাস্থ্য ঝুঁকি বয়ে আনে। ছবি: পিক্সাবে

তাই কোমল পানীয়, কেক, মিষ্টি ইত্যাদি চিনিজাতীয় খাবার বাজারজাত করার ক্ষেত্রে সাদা মোড়কে ক্ষতিকর সতর্কবার্তা, অতিরিক্ত চিনির কারণে সৃষ্ট রোগের বীভৎস ছবি ইত্যাদি সংযোজন করতে হবে।

ধূমপানের ক্ষতিকর দিকটির বিষয় বিজ্ঞান দ্বারা প্রমাণিত এবং এটি নিয়ে সন্দেহের কোনো অবকাশ নেই। তাই স্বাস্থ্য আন্দোলনকারী, শিক্ষাবিদদের দাবির মুখে ব্রিটেনের সরকার ধূমপান নিরুৎসাহিত করতে সাদামাটা প্যাকেটে সিগারেট বাজারজাত এবং প্যাকেটের গায়ে ধূমপানজনিত নানা রোগের বীভৎস ছবি জুড়ে দেয়। আন্দোলনকারীদের যুক্তি, এসব দেখে ধূমপানের ইচ্ছা কমে যাবে। এ পদ্ধতিটি দেশটিতে দারুণ কাজেও এসেছে।  

যুক্তরাজ্যের ইনস্টিটিউট অব পাবলিক পলিসি রিসার্চ এর বিজ্ঞানীরা এবার বলছেন, অতিরিক্ত চিনি খাওয়া ধূমপানের মতোই ক্ষতিকর হতে পারে। তাই চিনি বাজারজাত করার ক্ষেত্রেও তেমন কিছু করতে হবে।  

দেশটিতে ইতোমধ্যে অতিরিক্ত চিনি দেওয়া খাবার যেমন কোমল পানীয়, কেক, মিষ্টি ইত্যাদির ওপর প্রচুর করারোপ করা হয়েছে।

প্রতিষ্ঠানটির দাবি, অতিরিক্ত চিনিযুক্ত খাবারের স্বাস্থ্য ঝুঁকি বেশি থাকায় এসব খাবার বাজারজাত করার ক্ষেত্রে সাধারণ মোড়ক ও বাণিজ্যিক বিজ্ঞাপন বন্ধ করতে হবে। অতিরিক্ত মিষ্টিজাতীয় জিনিস খাবারের অভ্যাস ত্যাগ করতেই এটি করা দরকার বলে মনে করে প্রতিষ্ঠানটি। 

যুক্তরাজ্যের জাতীয় ডায়েট অ্যান্ড নিউটিশন সার্ভে নামের এক জরিপে দেখা গেছে, একজন টিনএজারের (মোট ক্যালরির অংশ হিসেবে) যতটুকু সুগার খাওয়া উচিৎ,  প্রকৃতপক্ষে সে তার তিনগুণ বেশি খাচ্ছে।

আইপিপিআরের পরিচালক টম কিবাসি বলেন, মিষ্টিজাতীয় খাবারকে সাদা প্যাকেটে বিক্রি শুরু করলে অতিরিক্ত চিনি খাওয়ার ক্ষেত্রে বড় পরবির্তন ঘটতে পারে।

তবে চিনি জাতীয় খাবার উৎপাদন করে এমন প্রতিষ্ঠাগুলো ইতোমধ্যেই বিষয়টি নিয়ে আপত্তি তুলেছে। তাদের দাবি, এটা ব্যবসার স্বাধীনতাবিরোধী। 

তবে অনেকের মতে, ধূমপান কমাতে যখন এ কৌশলটি ব্যবহার করা হয় তখন সিগারেট কোম্পানিগুলোও আপত্তি করেছিল। কিন্তু সরকারের কঠোর অবস্থানের কারণে কোম্পানিগুলো পিছু হটতে বাধ্য হয়। ফলে ব্রিটেনে গত ১০ বছরে ধূমপান এক তৃতীয়াংশ কমে গেছে। 

তাই কোমল পানীয়, কেক, মিষ্টি ইত্যাদি চিনিজাতীয় খাবার বাজারজাত করার ক্ষেত্রে সাদা মোড়কে ক্ষতিকর সতর্কবার্তা, অতিরিক্ত চিনির কারণে সৃষ্ট রোগের বীভৎস ছবি ইত্যাদি সংযোজন করতে হবে। এ ক্ষেত্রেও সরকারের এমন কঠোর নীতি জনস্বাস্থ্য রক্ষায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে বলে মত দিয়েছেন বিজ্ঞানীরা।