• রবিবার, নভেম্বর ১৭, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১২:০১ দুপুর

ক্ষুধা মোকাবিলায় ভারত-পাকিস্তানের চেয়ে এগিয়ে বাংলাদেশ

  • প্রকাশিত ১২:৫৬ দুপুর অক্টোবর ১৬, ২০১৯
ক্ষুধা সূচক
ছবি : লতিফ হোসেন

অপরদিকে বাংলাদেশের চেয়ে বেশ এগিয়ে শ্রীলংকার অবস্থান

চলতিবছরের বিশ্ব ক্ষুধা সূচকে (জিএইচআই) ক্ষুধা মোকাবিলায় আগের চেয়ে ভালো অবস্থানে রয়েছে বাংলাদেশ। ২০১৯ সালে এই ক্ষুধা সূচকের প্রতিবেদনে ২৫ দশমিক ৮ পয়েন্ট নিয়ে বাংলাদেশের অবস্থান ৮৮।  ২০১০ সালে বাংলাদেশের পয়েন্ট ছিল ৩০ দশমিক ৩। 

এদিকে ক্ষুধা মোকাবিলায় বাংলাদেশের পেছনে রয়েছে প্রতিবেশী দেশ ভারত ও পাকিস্তান। সূচকে ১১৭ দেশের মধ্যে পাকিস্তান ও ভারতের অবস্থান যথাক্রমে  ৯৪ ও ১০২। অপরদিকে বাংলাদেশের চেয়ে বেশ এগিয়ে শ্রীলংকার অবস্থান ৬৬। 

তালিকায় সবচেয়ে পিছিয়ে রয়েছে সেন্ট্রাল আফ্রিকান রিপাবলিক। অন্যদিকে ক্ষুধা মোকাবিলায় সবচেয়ে সফল অবস্থানে রয়েছে বেলারুশ। 

অপুষ্টি, শিশুমৃত্যু, পাঁচ বছরের চেয়ে কমবয়সী শিশুর উচ্চতার তুলনায় কম ওজন ও পুষ্টিহীনতার কারণে শারীরিক বৃদ্ধিতে বাধার মতো চারটি মাপকাঠিতে বিভিন্ন দেশকে বিচার করে বিশ্ব ক্ষুধা সূচক। সূচকে শূন্য থেকে ১০০ পর্যন্ত পয়েন্ট রয়েছে। চার মাপকাঠিতে যে দেশের পয়েন্ট যত বেশি হবে সেই দেশ তালিকায় ততো পিছিয়ে থাকবে।  

মাপকাঠিগুলোতে দেখা যায়, শিশুমৃত্যুর হার কমিয়ে বেশ সাফল্য দেখিয়েছে বাংলাদেশ। এতে বাংলাদেশের পয়েন্ট ৩ দশমিক ২। অন্যদিকে পাঁচ বছরের নিচের শিশুদের পুষ্টিহীনতার কারণে শারীরিক বৃদ্ধিতে বাধার মতো বিষয়টিতে ৩৬ দশমিক ২ পয়েন্ট নিয়ে পিছিয়ে রয়েছে বাংলাদেশ।  

২০১৯ সালের সূচক অনুযায়ী, পাঁচ বছরের কমবয়সী শিশুর উচ্চতার তুলনায় কম ওজনের বিষয়টি সবচেয়ে বেশি প্রকট ভারতে। ভারতে এর হার ২০ দশমিক ৮ শতাংশ।