• মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বর ২১, ২০২১
  • সর্বশেষ আপডেট : ১১:১৭ সকাল

এশীয়-প্রশান্ত মহাসাগরীয় গণিত অলিম্পিয়াডে বাংলাদেশের প্রথম স্বর্ণপদক

  • প্রকাশিত ০৪:০৮ বিকেল জুলাই ৩, ২০২১
গণিত অলিম্পিয়াড
এশীয়-প্রশান্ত মহাসাগরীয় গণিত অলিম্পিয়াডে স্বর্ণপদক জয়ী মো. মারুফ হাসান ইউএনবি

আন্তর্জাতিক এই প্রতিযোগিতার এবারের আসরে ৩৭টি দেশের মোট ৩৪৪ জন শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করে

অনেক আগেই আন্তর্জাতিক গণিত অলিম্পিয়াডে বাংলাদেশ স্বর্ণপদক জিতলেও এশীয়-প্রশান্ত মহাসাগরীয় গণিত অলিম্পিয়াডের (এপিএমও) স্বর্ণপদক ছিল অপ্রাপ্তির তালিকায়। মারুফ হাসানের হাত ধরে প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের দেশগুলোর স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে প্রতি বছর আয়োজিত প্রতিযোগিতার সেই অধরা স্বর্ণপদক এবার এলো বাংলাদেশের অর্জনের ঝুলিতে।

মঙ্গলবার (২৯ জুন) এর ফলাফল প্রকাশিত হয়।

মো. মারুফ হাসান ময়মনসিংহের আনন্দ মোহন কলেজের শিক্ষার্থী। এর আগে তিনি ২০১৯ এবং ২০২০ সালে এই প্রতিযোগিয়ায় যথাক্রমে রৌপ্য এবং ব্রোঞ্জ পদক জিতেছিলেন।

এছাড়া,ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের নুজহাত আহমেদ ও নটর ডেম কলেজের আদনান সাদিকের মাধ্যমে এসেছে দুটি ব্রোঞ্জপদকও। দলের ছয়জন পেয়েছে বিশেষ সম্মাননা।

আন্তর্জাতিক এই প্রতিযোগিতার এবারের আসরে ৩৭টি দেশের মোট ৩৪৪ জন শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করে। দলীয় স্কোর সর্বমোট ৯৬ নিয়ে বাংলাদেশের অবস্থান হয় ২১তম।

প্রসঙ্গত, এপিএমও প্রতিযোগিতায় প্রতিটি অংশগ্রহণকারী দেশের স্থানীয়ভাবে আয়োজন করার দায়িত্বে নিয়োজিত প্রতিনিধি রয়েছে। একটি কেন্দ্রীয় কমিটি চার ঘন্টার মধ্যে সমাধান করার জন্য পাঁচটি প্রশ্নসহ একটি পরীক্ষার আয়োজন করে উল্লেখযোগ্য উত্তরপত্র প্রেরণ করে এবং পুরস্কার বিজয়ীদের নির্ধারণ করে।

সেই লক্ষেই বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াড (বিডিএমও) কমিটি এ বছরের মার্চ মাসে গাণিতিক অলিম্পিয়াডের স্থানীয় সংস্করণের ঘোষণা দেয়, যা কারওয়ান বাজারের মোনেম বিজনেস জেলা ভবনে অনুষ্ঠিত হয়। সবচেয়ে ভালো ফলাফল করা ১০ জনের উত্তরপত্র পাঠানো হয় আন্তর্জাতিক কমিটির কাছে।

২০০৭ সালে বাংলাদেশ সর্বপ্রথম এপিএমওতে অংশ নেয়। প্রথম বছরে কোনো পদক না পেলেও ধীরে ধীরে ভারী হতে থাকে বাংলাদেশের ঝুলি। গত ১০ বছরের ফলাফল অনুসারে বাংলাদেশের সর্বমোট পদক ৭৬টি; যার মধ্যে আছে ১১টি রৌপ্যপদক, ৩৪টি ব্রোঞ্জপদক এবং ৩১টি বিশেষ সম্মাননা। প্রায় প্রতিবছরই সেরা ২০টি দলের মধ্যে অবস্থান করেছে বাংলাদেশ দল। তবে এবারের অর্জন নিঃসন্দেহে ছাড়িয়ে গেছে আগের সব সাফল্যকেই।

আন্তর্জাতিক এই আয়োজনে এমন অর্জনে ভবিষ্যৎ নিয়ে আরও আশাবাদী পুরো দলটি। সবার নিজ নিজ ভবিষ্যৎ পরিকল্পনার ব্যাপারে জানতে চাইলে গণিত নিয়ে গবেষণায় আগ্রহ প্রকাশ করে সবাই।

53
Facebook 50
blogger sharing button blogger
buffer sharing button buffer
diaspora sharing button diaspora
digg sharing button digg
douban sharing button douban
email sharing button email
evernote sharing button evernote
flipboard sharing button flipboard
pocket sharing button getpocket
github sharing button github
gmail sharing button gmail
googlebookmarks sharing button googlebookmarks
hackernews sharing button hackernews
instapaper sharing button instapaper
line sharing button line
linkedin sharing button linkedin
livejournal sharing button livejournal
mailru sharing button mailru
medium sharing button medium
meneame sharing button meneame
messenger sharing button messenger
odnoklassniki sharing button odnoklassniki
pinterest sharing button pinterest
print sharing button print
qzone sharing button qzone
reddit sharing button reddit
refind sharing button refind
renren sharing button renren
skype sharing button skype
snapchat sharing button snapchat
surfingbird sharing button surfingbird
telegram sharing button telegram
tumblr sharing button tumblr
twitter sharing button twitter
vk sharing button vk
wechat sharing button wechat
weibo sharing button weibo
whatsapp sharing button whatsapp
wordpress sharing button wordpress
xing sharing button xing
yahoomail sharing button yahoomail