• রবিবার, নভেম্বর ২৮, ২০২১
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৮:৩৭ রাত

বারোমাসি পেটের অসুখ থেকে ভালো থাকতে যা করবেন

  • প্রকাশিত ০৯:২৪ রাত অক্টোবর ২০, ২০২১
পেট ব্যথা অসুখ
প্রতীকী ছবি/পিক্সাবে

অনেক সহজেই দীর্ঘদিনের পেটের সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব

খাবার খাওয়ার পর অন্ত্রের সংকোচন-প্রসারণের মাধ্যমে হজম, বিভিন্ন পুষ্টি উপাদান শোষণ এবং সবশেষে বর্জ্য অপসারণের কাজটি করে থাকে আমাদের শরীর।

এই সংকোচন-প্রসারণ ৬০-৭০% মানুষের শরীরে অত্যন্ত সুচারুভাবে সম্পন্ন হলেও বাকি ৩০-৪০% মানুষের ক্ষেত্রে নানান উপসর্গ দেখা যায়। এই উপসর্গগুলোকে সাধারণত ফাংশনাল বাওয়েল ডিজঅর্ডার (Functional Bowel Disorder) বলা হয়।

অন্ত্রের কোন অংশে উপসর্গ দেখা দিয়েছে তার ওপর ভিত্তি করে একে কয়েক ভাগে ভাগ করা যায়। যেমন- পেটের উপরিভাগে জ্বালাপোড়া, ব্যথা, ভারি অনুভূত কিংবা বমিভাব থাকলে একে নন-আলসার (ক্ষতবিহীন) “ডিসপেপসিয়া” বা “গ্যাস্ট্রিক” বলে অভিহিত করা হয়।

অন্যদিকে, পাতলা পায়খানা বা কোষ্ঠকাঠিন্য, পেট ফাঁপা ইত্যাদি উপসর্গ থাকলে তাকে “ইরিটেবল বাওয়েল সিনড্রোম” বা আমাশয় বলে অভিহিত করা হয়।

অনেকেই দীর্ঘদিন ধরে এই সমস্যাগুলোয় ভুগলেও পরীক্ষা-নিরীক্ষায় তেমন কিছু ধরা না পড়ায় এবং চিকিৎসকরাও অনেক ক্ষেত্রেই কারণ ব্যাখ্যা করতে না পারায় রোগীর দুশ্চিন্তা আরও বেড়ে যায়। তবে অনেক সহজেই এই সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব।

রাজধানীর বায়োমেড ডায়াগনস্টিক অ্যান্ড রিসার্চ ল্যাবরেটরির ফ্যামিলি ফিজিশিয়ান ডা. মুহম্মদ মুহিদুল ইসলাম অন্ত্রের এ ধরনের সমস্যার চিকিৎসা সম্পর্কে ঢাকা ট্রিবিউনের পাঠকদের জন্য কিছু উপদেশ দিয়েছেন।  

> ফাংশনাল বাওয়েল ডিজঅর্ডারের প্রধান চিকিৎসা এটা বিশ্বাস করা যে শরীরে কোনো কাঠামোগত রোগ থেকে এসব উপসর্গের উৎপত্তি হচ্ছে না। শরীরে কোনো খারাপ রোগ নেই এটি বিশ্বাস করলে উপসর্গ অনেকাংশেই কমে যায়।

অন্যদিকে, “ইরিটেবল বাওয়েল সিনড্রোম”-এর রোগীদের রক্ত ছাড়া কেবলমাত্র ৫-৭ বার নরম পায়খানার জন্য উদ্বিগ্ন হাওয়ার কোনো কারণ নেই।

> অন্ত্রের চিকিৎসার গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয় খাদ্য তালিকায় পরিবর্তন আনা। মাংসের পরিমাণ কমিয়ে সবজির পরিমাণ বাড়ালে অনেকের ক্ষেত্রেই উপসর্গ কমে যায়। 

সপ্তাহে ৪-৫ দিন পেঁপে এবং সপ্তাহে দুই দিন বেলের শরবত খেলে উপকার হতে পারে। কাচকলাও পাতলা পায়খানা কমাতে উপকারী। 

অন্যদিকে, কোষ্ঠকাঠিন্যের জন্য প্রতিদিন ২-৯ চামচ ইসুবগুলের ভূষি এবং দিনে ৮ থেকে ১২ গ্লাস পানি পান করা উচিত। 

দুধ খেলে অনেকের অন্ত্রের উপসর্গ বেড়ে যায়। তাই তাদের দুধ ও দুধের তৈরি খাদ্যদ্রব্য এড়িয়ে চলাই ভালো। 

> নিয়মিত ব্যায়াম অন্ত্রের সমস্যা কমিয়ে আনতে উপকারী। নিয়মিত ব্যায়াম অন্ত্রের সংকোচন-প্রসারণকে সঠিক মাত্রায় নিয়ে আসে। 

> যতটা সম্ভব চিন্তামুক্ত থাকা অন্ত্রকে ভালো রাখার আরেকটি উপায়। জীবনের সমস্যাগুলো নিয়ে পরিবার বা কর্মক্ষেত্রের কারও সঙ্গে খেলামেলা আলোচনা করুন, এতে সমস্যা সমাধানে তারা সাহায্য করতে পারবেন। দুশ্চিন্তা বা বিষণ্নতা কমাতে মনোরোগ বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিতে দ্বিধা করবেন না। 

> অন্ত্রের সমস্যা সমাধানে যতটা পারবেন ওষুধ এড়িয়ে চলবেন। ক্ষতবিহীন ডিসপেপসিয়ার অনেক রোগী অ্যান্টাসিড, রেনিটিডিন বা ফ্যামোটিডিন খেলে আরাম পান। এই ওষুধগুলো তুলনামূলক নিরাপদ। তবে, রেনিটিডিন ক্যান্সারের জন্য দায়ী বলে বর্তমানে নিষিদ্ধ। তবে এসব ওষুধ সমস্যার কোনো স্থায়ী সমাধান নয়। তাই নিয়মিত এগুলো ব্যবহার করার প্রয়োজন নেই। 

অন্যদিকে, ইরিটেবল বাওয়েল ডিসঅর্ডারে ভূক্তভোগী অনেকেই ফ্লাজিল জাতীয় ওষুধ খেয়ে ফেলেন। এগুলো সাময়িক আরাম দিলেও শরীরের জন্য ক্ষতিকর। 

ফাংশনাল বাওয়েল ডিজঅর্ডারে ভুগছেন এমন অনেকেরই অতিরিক্ত ঢেঁকুর উঠতে থাকে। যারা অতিরিক্ত টেনশনে থাকেন তাদের অনেকেই খাবারের সঙ্গে অজান্তেই শরীরে অতিরিক্ত বাতাস গ্রহণ করেন। এক্ষেত্রে ঢেঁকুর আসতে চাইলেও জোর করে আটকে দেবেন। কারণ ঢেঁকুর তোলার সময় যতটুকু বাতাস বের হয় তার চেয়ে অনেক বেশি বাতাস ভেতরে ঢুকে পড়ে। ঢেঁকুর আটকে রাখলে প্রথম দিকে কষ্ট বেড়ে গেলেও, ধীরে ধীরে তা ঠিক হয়ে যাবে।  

এছাড়া, খাওয়ার সময় মুখ বন্ধ রেখে ধীরে ধীরে খাবার চিবিয়ে খাওয়া, খাওয়ার সময় কথা না বলা এবং খাওয়ার ফাঁকে ফাঁকে চুমুক দিয়ে তরল খাদ্য গ্রহণ না করা উচিত। এতে শরীরে বাতাস প্রবেশ করতে পারবে না।

51
Facebook 50
blogger sharing button blogger
buffer sharing button buffer
diaspora sharing button diaspora
digg sharing button digg
douban sharing button douban
email sharing button email
evernote sharing button evernote
flipboard sharing button flipboard
pocket sharing button getpocket
github sharing button github
gmail sharing button gmail
googlebookmarks sharing button googlebookmarks
hackernews sharing button hackernews
instapaper sharing button instapaper
line sharing button line
linkedin sharing button linkedin
livejournal sharing button livejournal
mailru sharing button mailru
medium sharing button medium
meneame sharing button meneame
messenger sharing button messenger
odnoklassniki sharing button odnoklassniki
pinterest sharing button pinterest
print sharing button print
qzone sharing button qzone
reddit sharing button reddit
refind sharing button refind
renren sharing button renren
skype sharing button skype
snapchat sharing button snapchat
surfingbird sharing button surfingbird
telegram sharing button telegram
tumblr sharing button tumblr
twitter sharing button twitter
vk sharing button vk
wechat sharing button wechat
weibo sharing button weibo
whatsapp sharing button whatsapp
wordpress sharing button wordpress
xing sharing button xing
yahoomail sharing button yahoomail