Tuesday, May 28, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

অতিরিক্ত চিনি খেয়েই বিশ্বের সাড়ে ৩ কোটি মানুষের মৃত্যু!

প্রতিবছর সংক্রামক কোনও ফ্লুয়ের চেয়ে অতিরিক্ত চিনি খেয়ে বিষক্রিয়ার কারণে অনেকবেশি মানুষ অসুস্থ হন

আপডেট : ২৩ অক্টোবর ২০২০, ০৪:৫৩ পিএম

অতিরিক্ত চিনি খাওয়ার ফলে নানা রোগে প্রতি বছর প্রায় সাড়ে তিন কোটি মানুষ মারা যান। বিজ্ঞানবিষয়ক সাময়িকী দ্য নেচারে এ সংক্রান্ত এক গবেষণা প্রকাশিত হয়েছে। 

প্রতিবেদনটিতে বলা হয়েছে, বিশ্বের যত মানুষ প্রতিবছর সংক্রামক কোনও ফ্লুতে আক্রান্ত হন, তারচেয়ে অনেকবেশি মানুষ অসুস্থ হন অতিরিক্ত চিনি খেয়ে বিষক্রিয়ার কারণে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে, পূর্ণবয়স্ক পুরুষদের কখনোই দিনে ৯ চামচের বেশি এবং নারীদের দিনে ৬ চামচের বেশি চিনি খাওয়া উচিত নয়।

আনন্দবাজারের এক প্রতিবেদনে যুক্তরাষ্ট্র সরকারের ডায়াটেরি গাইড লাইন তুলে ধরে বলা হয়েছে, প্রাপ্তবয়স্ক একজন মানুষ যত পরিমাণ ক্যালোরি খায়, তার ১০ থেকে ১৫% কম ক্যালোরি কম আসা উচিত চিনি থেকে। যদিও বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই তা ২৫% পর্যন্ত ছাড়িয়ে যায়। এছাড়া আন্তর্জাতিক হিসাব অনুযায়ী চিনিতে সালফার ডাই-অক্সাইডের মাত্রা যা থাকার কথা, উপমহাদেশের দেশগুলোতে থাকে তার প্রায় ৭ গুণেরও বেশি।

অনেকেই চিনি না খেয়ে লো-ফ্যাট ও প্রক্রিয়াজাত খাবারের ওপর বেশি নির্ভরশীল হয়ে পড়েন। এটিও শরীরের জন্য বিপজ্জনক। কারণ প্রথমত সব ফ্যাট বা চর্বিযুক্ত খাবারই যে শরীরের জন্য খারাপ তা নয়। বরং বেশকিছু ভালো ফ্যাটও রয়েছে। যা খাবার থেকে বাদ দেওয়ার ফলে দ্রুত ক্ষুধা লাগে, ফলে বেশি খাওয়া হয়ে যায়। আবার খাবার থেকে ফ্যাট বের করে আনায় স্বাদ চলে যাওয়ায় মেশাতে হয় বিভিন্ন ধরনের চিনি। ফলে ক্যালোরি ঠিকই রয়ে যায় শরীরে।

প্রসেসড খাবারেও থাকে প্রচুর চিনি। যেমন, কর্নফ্লেক্স পাউরুটি, বিস্কুট, মেয়োনিজ ও অন্যান্য স্যালাড ড্রেসিং ইত্যাদি। প্যাকেটের ফলের রস, সস, ক্যান্ডি, নরম পানীয় ইত্যাদিতেও প্রচুর চিনি থাকে, যা শরীরের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকর।

 

About

Popular Links