Thursday, May 30, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

সুস্থ-সুন্দর চুলের রহস্য!

সুস্থ-সুন্দর চুলের জন্যে স্বাস্থ্যকর খাওয়াদাওয়া ও পর্যাপ্ত পরিমাণে ঘুমও কিন্তু জরুরি

আপডেট : ০৩ আগস্ট ২০২১, ০১:৩৭ পিএম

গরম এবং আর্দ্র আবহাওয়ায় চুল পড়া অনেক সাধারণ একটি বিষয়। চুল পড়া কমানোর জন্য স্বাভাবিক চুলের জন্য সপ্তাহে একবার চুলে তেল দেওয়া করাই যথেষ্ট।যদি তৈলাক্ত হয়, শুষ্ক প্রকৃতির হলে প্রয়োজনভেদে দুই সপ্তাহে একবার, কিংবা একসপ্তাহে দুইবার চুলে তেল দিতে পারেন, সপ্তাহে দুই-তিনবার চুল ধুয়ে নিতে পারেন। 

চুলে শ্যাম্পু খুব অল্প পরিমাণে ব্যবহার করা উচিত। শ্যাম্পু দিয়ে খুব ভালোভাবে চুল এবং চুলের ত্বক পরিষ্কার করা প্রয়োজন।অবশ্যই যেন চুলের ত্বকে শ্যাম্পু না থাকে সেই দিকে খেয়াল রাখবেন।  সপ্তাহে একদিন শেষবার চুল ধোওয়ার সময় অ্যাপল সাইডার ভিনিগার ব্যবহার করতে পারেন, এতে করে চুলে জেল্লা আসবে। দুই-তিনমাস অন্তর একবার চুল ট্রিম করাতে পারেন। এতে করে চুল ভেঙে যাওয়ার সমস্যা থাকলে কমে যাবে। এছাড়া প্রতিদিন রাতে নন-অয়েলি হারবাল হেয়ার টনিক লাগাতে পারেন। সুস্থ সুন্দর চুলের জন্যে খাওয়াদাওয়া এবং পর্যাপ্ত পরিমানে ঘুমও কিন্তু জরুরি। 

ডায়েটে প্রোটিনের অভাব হলে চুল লালচে কিংবা বাদামি হয়ে যেতে থাকে। অতিরিক্ত রোদ থেকেও অনেকের ক্ষেত্রে এই সমস্যা হয়। চেষ্টা করবেন সেই ক্ষেত্রে পর্যাপ্ত পরিমাণে প্রোটিন জাতীয় খাবার খেতে। নিয়মিত ডিম, মাছ, চিকেন, ডাল, টক দই ইত্যাদি খেতে পারেন। এছাড়াও খাবারের তালিকায় রাখুন প্রচুর পরিমাণে সবুজ শাকসবজি।

চুলের বিশেষ যত্নে এক চা-চামচ ক্যাস্টর অয়েলের সঙ্গে এক টেবলচামচ নারকেল তেল মিশিয়ে গরম জলের উপর পাত্রটি রেখে হালকা গরম করে নিয়ে চুলে লাগাতে পারেন। সপ্তাহে একবার এই তেলের মিশ্রণ চুলে লাগিয়ে, পরেরদিন ধুয়ে ফেলবেন।  চুলের উজ্জ্বলতা ফিরিয়ে আনতে লেবুর রস বা চায়ের লিকার দিয়ে চুল ধুতে পারেন। একসঙ্গে চাল ধোয়া পানি এবং পাতিলেবুর রস মিশিয়েও নিতে পারেন। শ্যাম্পু করার পর শেষবার এই মিশ্রণ দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলতে পারেন।

চুলের বৃদ্ধির জন্য পেয়াঁজের রস ভীষণ কার্যকরী।নারিকেল তেলের সাথে পেয়াঁজের রস মিশিয়ে চুলে লাগাতে পারেন। এছাড়া, অলিভ অয়েল, ক্যাস্টর অয়েলও চুল বাড়তে সাহায্য করে।

তবে মনে রাখবেন, শরীর সুস্থ থাকলেই, ত্বক এবং চুল ভাল থাকবে।

About

Popular Links