Wednesday, May 29, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

‘মিশন সোয়াচ অফ নো গ্রাউন্ড’ থ্রিলার পাঠকের নতুন দিশা

তিনটি থ্রিলার গল্পের সংকলন এই ‘মিশন সোয়াচ অফ নো গ্রাউন্ড’ বই। নাম অঙ্কিত থ্রিলার গল্পের সঙ্গে এতে যুক্ত আরও দুটি গল্প। এদের নাম ‘সমুদ্রের ডাক’ ও ‘মরীচিকা’

আপডেট : ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২২, ১১:৫৭ এএম

সাহিত্য জনরায় থ্রিলার বরাবরই পাঠকপ্রিয়। সব যুগে সব বয়সী পাঠকের কাছে থ্রিলারের অন্য এক আবেদন। সাম্প্রতিক চলচ্চিত্র মাধ্যম এর ব্যতিক্রম নয়। ওটিটি আর সিনেপর্দায় চলছে থ্রিলারের জয়জয়কার।

এ বাস্তবতায় এ বছর ২০২২ এর ফেব্রুয়ারিতে অনুপম প্রকাশনী প্রকাশিত কার্টুনিস্ট, উন্মাদ সম্পাদক, গ্রাফিক নভেল শিক্ষক ও রম্য লেখক আহসান হাবীব রচিত ‘‘মিশন সোয়াচ অফ নো গ্রাউন্ড’’ এক নতুন যোজনা। পাঠকপ্রিয় জননন্দিত আহসান হাবীবের অন্য পরিচয় যেন উন্মোচিত এ বইয়ে। শুধু রম্যই নয়, থ্রিলার রচনায়ও তিনি স্বতন্ত্র।

তিনটি থ্রিলার গল্পের সংকলন ‘‘মিশন সোয়াচ অফ নো গ্রাউন্ড’’ বই। নাম অঙ্কিত থ্রিলার গল্পের সঙ্গে এতে যুক্ত আরও দুটি গল্প। এদের নাম ‘‘সমুদ্রের ডাক’’ ও ‘‘মরীচিকা’’।

তিন গল্পই আলাদা। প্রেক্ষাপটও ভিন্ন। কিন্তু থ্রিলারের উত্তেজনা তিন গল্পের পরতে পরতে এ বইয়ের পৃষ্ঠা জুড়ে। দেশ ও দেশের মানুষ ও এর প্রাণ প্রকৃতিকে ভালোবাসার আবহ চিত্রিত এ বইয়ে।  

অনুপম প্রকাশনীর এ বইয়ের প্রচ্ছদকারও আহসান হাবীব। বইয়ের দাম ২৫০ টাকা। পাঠকের কাছে তা অমূল্য মনে হবে এ বইয়ের পাঠ শেষে। চলচ্চিত্রমাধ্যমে যুক্তরা পাবেন নতুন প্লট।

গল্প লিখতে কতটা ব্যাপক পড়াশোনা প্রয়োজন তা প্রকাশিত এ বইয়ের পাতায়। তিনটি গল্পের দুটিতেই সমুদ্র অভিযান কেন্দ্রিক যুদ্ধের অপারেশন গুরুত্ব পেয়েছে। টের পাওয়া যায় লেখক আহসান হাবীবের সমুদ্রবিজ্ঞান, যুদ্ধবিদ্যা ও অস্ত্র বিষয়ক পড়াশোনার বিপুলতা।

জুলুমবাজ রাজনীতিবিদ শাসকগোষ্ঠী ও মাফিয়া আন্ডারওয়ার্ল্ডকে স্পষ্টভাবে দেখিয়েছেন লেখক। তিনটি গল্পেই দুষ্টের দমন আর শিষ্টের জয়ী হওয়া দারুণভাবে উপস্থাপন করেছেন তিনি।

‘‘মিশন সোয়াচ অফ নো গ্রাউন্ড’’ পড়লে পাঠকের গর্ব হবে দেশকে ভালোবাসা মানুষের জন্য। দেশপ্রেম কোনো অলীক ধারণা নয়। দুঃশাসন থেকে মানুষকে মুক্ত করাই প্রকৃত দেশপ্রেম। এ বই এমন সত্যকেই বলে যায়।    

বইয়ের গল্পগুলোর বৃন্তাত্ত বলে পাঠকের কৌতূহল নিবৃত্তের ইচ্ছে নেই। বলা যায় শুধু বইটি পড়ে নিজের ভালো লাগা। ‘‘মিশন সোয়াচ অফ নো গ্রাউন্ড’’ গল্পে দেশপ্রেমিক হাসানের বীরত্ব ভালো লাগে। ‘‘সমুদ্রের ডাক’’ গল্পে ভিন্নধাঁচের ডাক্তার আজমলের জন্য মন কেমন করে। ‘‘মরীচিকা’’ গল্পে বাংলার কমান্ডো কায়সারের বীরত্ব মন ছুঁয়ে যায়।

লেখক বইয়ের ভূমিকায় লিখেছেন, “  . . . আমার গল্প বলায় নেপথ্যে কমিকসের ফ্রেমিং চলে আসে। . . . ”

এর জন্য তিনি পাঠকের কাছে ক্ষমা চেয়েছেন। কিন্তু বাস্তবে পাঠক হিসেবে চাক্ষুশ বাস্তবকে তুলে আনার জন্য ‘‘মিশন সোয়াচ অফ নো গ্রাউন্ড’’ স্মরণীয় থাকবে।

ফ্রেমে ফ্রেমে ছবি আঁকা স্ট্রেরি বোর্ড হিসেবেও চলচ্চিত্র নির্মাতাদের কাছে এ বই গুরুত্ব পাবে। সাহিত্যের সীমা অতিক্রম করে অন্য শিল্প মাধ্যমেও দাগ কাটতে সক্ষম এ বই। আর তা ঘটলে গল্পের দুর্দশায় ভোগা দেশের ছবি নতুন মাত্রা পাবে। ‘‘মিশন সোয়াচ অফ নো গ্রাউন্ড’’ বই শক্তিমান যেন এখানেই।


লেখক ও ফ্রিল্যান্স সাংবাদিক হাসান শাওনের জন্ম, বেড়ে ওঠা রাজধানীর মিরপুরে। পড়াশোনা করেছেন মনিপুর উচ্চ বিদ্যালয়, সরকারি বাঙলা কলেজ, বাংলাদেশ সিনেমা ও টেলিভিশন ইনস্টিটিউটে। ২০০৫ সাল থেকে তিনি লেখালেখি ও সাংবাদিকতায় যুক্ত। কাজ করেছেন সমকাল, বণিক বার্তা, ক্যানভাস ম্যাগাজিন ও আজকের পত্রিকায়।

২০২০ সালের ১৩ নভেম্বর হাসান শাওনের প্রথম বই “হুমায়ূনকে নিয়ে” প্রকাশিত হয়।



About

Popular Links