Wednesday, May 22, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

কাঁচামরিচেরও আছে বহু উপকারী দিক, জানালেন ভাগ্যশ্রী

কাঁচামরিচের উপকারি দিক সম্পর্কে সবাইকে জানাতে গত ২৩ আগস্ট ইনস্টাগ্রামে একটি ভিডিও আপলোড করেছিলেন ভাগ্যশ্রী

আপডেট : ০৪ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৪:২৭ পিএম

ভারতীয় অভিনেত্রী ভাগ্যশ্রী একজন পুষ্টিবিদও বটে। সুস্বাস্থ্যকে সবসময়ই অগ্রাধিকার দিয়ে আসা এই তারকা সচেতনতার জন্য সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বিভিন্ন ভিডিও দিয়ে থাকেন। সম্প্রতি তিনি ইনস্টাগ্রামে কাঁচামরিচের উপকারিতা তুলে ধরেছেন। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়ার সৌজন্যে পাঠকদের জন্য সেগুলো তুলে ধরা হলো।

নিত্যদিনের খাবারের তরকারি থেকে শুরু করে জিভে জল আনা মুখরোচক আচারের অন্যতম মূল উপাদান হলো কাঁচামরিচ। আপনার দৈনন্দিন খাদ্যতালিকায় থাকা ডাল এবং সবজি থাকে, তাহলে সেগুলোতে কাঁচামরিচ যোগ করে অনায়াসেই আপনি খাবারগুলোর স্বাদে বৈচিত্র্য আনতে পারেন।

কাঁচামরিচের যত উপকারী দিক

ওজন ঝরানো: কাঁচামরিচে কোনো ক্যালরি নেই। দৈনন্দিন খাদ্যতালিকায় কাঁচামরিচ থাকলে খাবার খাওয়ার ৩ ঘণ্টা পর থেকে আপনার শরীরের মেটাবলিজম (খাদ্যকে শক্তিতে রূপান্তরের প্রক্রিয়া) ৫০% বাড়িয়ে দেয়।

ক্যান্সার প্রতিরোধক: কাঁচামরিচে প্রচুর অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকে যা শরীরকে বিভিন্ন রোগজীবাণুর হাত থেকে মুক্ত রেখে ক্যান্সার প্রতিরোধে সহায়তা করে।

হৃৎপিণ্ডের সুস্থতা: রক্তে কোলেস্টেরলের পাশাপাশি ট্রাইগ্লিসারাইডের মাত্রা কমাতে কাঁচামরিচ দারুণ কার্যকরী। সেই সঙ্গে রক্ত জমাট বেঁধে যাওয়ার হাত থেকে শরীরের সক্ষমতা বৃদ্ধিতেও দারুণ উপকারি। ফলে স্ট্রোক বা হৃদরোগের ঝুঁকি অনেকাংশেই কমে যায়।


সর্দি-কাশি থেকে মুক্তি: কাঁচামরিচে থাকা ক্যাপসাইসিন আপনার শ্লেষ্মা নিঃসরণকে পাতলা করে, যা সাধারণ সর্দি বা সাইনাস সংক্রমণের বিরুদ্ধে লড়াই করতে বেশ কার্যকর।

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি:  ভিটামিন “সি” এবং বিটা-ক্যারোটিনসমৃদ্ধ কাঁচামরিচ আপনার চোখ, ত্বক এবং শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। তবে ভিটামিন ‍‍“সি”-এর গুণাগুণ অটুট রাখতে কাঁচামরিচ অন্ধকার এবং শীতল জায়গায় সংরক্ষণ বাধ্যতামূলক। কেননা তাপ, আলো এবং বাতাসের সংস্পর্শে এলে কাঁচামরিচের ভিটামিন “সি”র কার্যকারিতা কমে যায়।

পুষ্টিগুণ বিবেচনায় লাল মরিচের তুলনায় কাঁচামরিচ বেশি কার্যকরী হওয়ার কারণ হিসেবে ভাগ্যশ্রী বলেন, “লালমরিচেও কাঁচামরিচের মতো উপকারী দিক রয়েছে। কিন্তু কাঁচামরিচ যেভাবে আমরা সরাসরি খাই, লালমরিচ কিন্তু সেভাবে খাই না। তাছাড়া, লালমরিচ বেশি খেলে গ্যাস্ট্রিক আলসার এবং বুক জ্বালাপোড়ার মতো সমস্যা হতে পারে। তাই যারা আমার মতো মসলাপ্রেমী, তারা খাবারে কাঁচামরিচ ব্যবহার করুন। আরও ভালো হয় যদি আমার মতোই ঘরে লাগানো কাঁচামরিচ ব্যবহার করেন তো।”

About

Popular Links