Tuesday, May 28, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

দ্বিতীয়বার গর্ভধারণের আগে জেনে রাখুন কিছু বিষয়

 গর্ভধারণ প্রতিবারই নারীর জন্য নতুন অভিজ্ঞতা নিয়ে হাজির হয়

আপডেট : ০৫ জানুয়ারি ২০২৩, ০৯:৫৫ পিএম

মা হওয়া মানেই যেকোনো নারীর জন্য স্বর্গীয় এক অনুভূতি। যদিও এই অনূভূতির জন্য যে অভিজ্ঞতার মধ্য দিয়ে যেতে হয়, সেটির ধকল নারীকে বইতে হয় দীর্ঘদিন। প্রথম সন্তান জন্ম দেওয়ার পর একটু গুছিয়ে উঠে অনেকেই দ্বিতীয়বার গর্ভধারণের পরিকল্পনা করেন।

অনেকের ধারণা, আগেরবারের তুলনায় দ্বিতীয়বার গর্ভধারণ বুঝি সহজতর হবে। কারণ শরীর আগে একবার এমন অভিজ্ঞতায় অভ্যস্ত হয়ে যাওয়ায় পরেরবার আর কোনো জটিলতা হবে না। কিন্তু সত্যি বলতে, এই ধারণা সম্পূর্ণ ভুল।

মনে রাখতে হবে, নারীর বয়স অল্প হলেও গর্ভধারণ প্রতিবারই নতুন অভিজ্ঞতা নিয়ে হাজির হবে। প্রথমবার গর্ভধারণের সময়ে একজন নারীকে যে শারীরিক অভিজ্ঞতার মধ্য দিয়ে যেতে হয়, দ্বিতীয়বার তাতে অনেক পরিবর্তন আসে।

এমনকি দ্বিতীয়বার গর্ভাবস্থার সময় একজন নারীর এমন অনেক অভিজ্ঞতা হতে পারে, যা আগেরবারে হয়নি। তাই দ্বিতীয়বার গর্ভধারণ সম্পর্কে ৫টি প্রয়োজনীয় জিনিস জেনে নেওয়া অত্যন্ত জরুরি-

দ্বিতীয়বারে বেবিবাম্প দ্রুত দেখা দেবে

প্রথমবার গর্ভধারণের সময়ে একজন নারীর তলপেট ও ইউটেরাসের মাংসপেশি এবং লিগামেন্টগুলো ঢিলে হয়ে ইতোমধ্যেই ইতিমধ্যেই প্রসারিত হয়েছে। ফলে দ্বিতীয়বার গর্ভধারণের পর প্রথমবারের তুলনায় বেবি বাম্প তুলনামূলক দ্রুত দৃশ্যমান হবে।

বেশি ক্লান্তি অনুভূত হবে

প্রথমবার গর্ভধারণের সময়ে আপনাকে শুধু নিজের খেয়াল রাখলেই চলতো। কিন্তু দ্বিতীয়বার গর্ভধারণের সময়ে আপনাকে নিজের পাশাপাশি প্রথম সন্তানটিকেও দেখাশোনা করতে হয়। এ কারণে দ্বিতীয়বার গর্ভধারণের সময়ে প্রথমবারের তুলনায় নারীরা একটু বেশি ক্লান্ত অনুভব করে।

বেশি ব্যথা অনুভব করবেন

দ্বিতীয়বার গর্ভধারণের সময়ে শরীরের হাড়ের জয়েন্টগুলো বেশ আলগা ও শিথিল হওয়া শুরু করে। ফলে শরীরে প্রায়ই ব্যথা অনুভূত হবে। ওভারি এবং প্ল্যাসেন্টা থেকে নিঃসৃত হরমোনের কারণে শরীরে ব্যাথা অনুভূত হতে পারে। তাছাড়া, গর্ভে সন্তানের অবস্থানের জন্যও শরীর ব্যথা হওয়ার সম্ভাবনা আছে।

প্রসববেদনা কমে যাবে

প্রথমবার গর্ভধারণের সময়ে একজন নারীর প্রসববেদনা যেমন সহ্যক্ষমতার পরীক্ষা নেয়, তেমনি সন্তান জন্মদানে সময়ও বেশি লাগে। তবে দ্বিতীয়বার গর্ভধারণের ক্ষেত্রে সন্তান জন্মদানের সময়ও বেশ কমে যায়।

একটি সমীক্ষায় দেখা যায়, সাধারণত প্রথমবার গর্ভধারণে প্রসববেদনা ওঠা থেকে সন্তান জন্মদানে একজন নারীর প্রায় ৯ ঘণ্টা সময় লাগে। কিন্তু দ্বিতীয়বারে একজন নারীর সময় লাগে মাত্র ৬ ঘণ্টা, যা প্রায় ৩০% কম। কারণ প্রথমবারে ওই নারীর কারভিক্স ও ভ্যাজাইনাল টিস্যু অনেক নমনীয় হয়ে গেছে।

প্রসবোত্তর ব্যথা বেশি ভোগাতে পারে

দুঃখজনক হলেও সত্যি যে দ্বিতীয়বার গর্ভধারণে প্রসববেদনা তেমন কঠিন অভিজ্ঞতা না দিলেও প্রসবোত্তর ব্যথা একজন নারীকে বেশ ভোগাতে পারে। দ্বিতীয়বার সন্তান জন্মদানের সময়ে একজন নারীর ইউটেরাস এমনিতেই বড় হয়ে আছে। ফলে দ্বিতীয়বার সন্তান জন্মদানের সময়ে ইউটেরাস পুনরায় নিজের পূর্বের অবস্থায় ফেরত যাওয়ার সময়ে নারী বেশ কষ্টকর অভিজ্ঞতার মধ্য দিয়ে যান।

About

Popular Links