Monday, May 27, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

যেভাবে গরুর মাংস রান্না করলে কমবে স্বাস্থ্যঝুঁকি

রান্নার আগে স্বাদ ও গুণগত মান যথাসম্ভব অক্ষুণ্ণ রেখে কোরবানির মাংস জীবাণুমুক্ত করা উচিত

আপডেট : ২৮ জুন ২০২৩, ১২:৪২ পিএম

বছর ঘুরে আবার চলে এসেছে পবিত্র ঈদ-উল-আজহা, যা কোরবানির ঈদ হিসেবে পরিচিত। কোরবানির ঈদ মানেই টেবিলে গরু আর খাসির মাংসের বাহারি পদের ছড়াছড়ি। গরু বা খাসির মাংসকে রেড মিট বা লাল মাংসও বলা হয়ে থাকে। যতই স্বাস্থ্যের খাতিরে চিকিৎসকের বিধিনিষেধ থাকুক না, চোখের সামনে মাংসের বাহারি পদ দেখলে লোভ সামলানো দায়।

লাল মাংসে প্রচুর পরিমাণে পুষ্টি উপাদান থাকে। কিন্তু তাই বলে অতিরিক্ত লাল মাংস খাওয়া একদম অনুচিত। কারণ এতে বিভিন্ন ধরনের স্বাস্থ্যঝুঁকি বেড়ে যাওয়ার আশংকা রয়েছে। বিশেষ করে যাদের ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ, কিডনি, হৃদরোগের সমস্যা আছে, তাদের জন্য অতিরিক্ত মাংস খাওয়া তো একদমই উচিত না।

রান্নার আগে স্বাদ ও গুণগত মান যথাসম্ভব অক্ষুন্ন রেখে কোরবানির মাংস জীবাণুমুক্ত করা উচিত। পাশাপাশি পচন রোধের মাধ্যমে খাদ্যবাহিত রোগ সংক্রমণের দিকেও লক্ষ্য রাখা উচিত। কোরবানির ঈদের সময় এলেই অনেকের মনে প্রশ্ন জাগে-  কীভাবে মাংস রান্না করা স্বাস্থ্যসম্মত?

বাংলাদেশ মাল্টিকেয়ার হাসপাতাল ও ইবনেসিনা ডায়াগনস্টিক অ্যান্ড কনসালটেশন সেন্টারের ক্লিনিক্যাল ডায়াটিশিয়ান ও নিউট্রিশন কনসালটেন্ট ফাতেমা সিদ্দিকী ছন্দা জানালেন গরুর মাংস কীভাবে রান্না করলে স্বাস্থ্যঝুঁকি কমে।

-রান্নার আগে গরুর মাংসের দৃশ্যমান সব চর্বি অবশ্যই ফেলে দিতে হবে।

-মাংস কাটার সময় যতটা সম্ভব ছোট টুকরা করে কাটা উচিত। এতে ভেতরে থাকা চর্বি বেরিয়ে আসবে। এজন্য মাংস কিমা করে খাওয়া বেশি নিরাপদ। 

-মাংস খাওয়ার সময় ঝোল এড়িয়ে চলা ভালো।

-হৃদরোগীদের জন্য মাংস আগে ফুটিয়ে চর্বির পানি ফেলে দিয়ে তারপর রান্না করতে হবে।

-গরু বা খাসির মাংস সবজি দিয়ে রান্না করতে পারেন। এতে মাংস কম খাওয়া হয়। পাশাপাশি পুষ্টিগুণও বেড়ে যায় রান্নার। এক্ষেত্রে মাশরুম অথবা আস্ত রসুন দিয়ে মাংস রান্না করতে পারেন। আবার মাংস রান্নায় লাউ, বাঁধাকপি, পেঁপে বা মিষ্টিকুমড়াও রাখতে পারেন।

-রান্নায় ঘি অথবা ডালডা ব্যবহার না করাই শ্রেয়। বরং ফ্যাট কমাতে ভিনেগার, লেবুর রস অথবা টক দই দিয়ে মাংস রান্না করুন।

-মাংস রান্নার পর কিছুক্ষণ রেখে দিলে উপরে চর্বির আস্তরণ জমে যায়। পরে এগুলো চামচ দিয়ে ফেলে দিন।

-গরুর মাংসের একটি জনপ্রিয় পদ হলো কাবাব। কাবাবের ক্ষেত্রে গরুর মাংসের কিমার সঙ্গে ডাল যোগ করুন। এছাড়া, পুড়িয়ে তৈরি কাবাবের ক্ষেত্রে ক্ষতির ঝুঁকি তুলমানূলক কম।

About

Popular Links