Saturday, May 25, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

লঙ্কা নিয়ে লঙ্কাকাণ্ড! (ভিডিও)

ঘড়িতে তখন রাত ১১টা। লিনের বাড়ির চারপাশ লোকে লোকারণ্য। কেউ ছবি তুলে ফেসবুক-টুইটারে পোস্ট করছেন। কেউ ফেসবুকে লাইভে যাচ্ছেন। একদল আবার লিনকে খাওয়ানোর জন্য রান্না করছেন পাতিলভর্তি মরিচ।

আপডেট : ১৪ জানুয়ারি ২০১৯, ১০:০৫ পিএম

রামায়ণের লঙ্কাকাণ্ডের ঘটনা কমবেশি সবার জানা। পৌরাণিক এই ঘটনায় এক রক্তারক্তির যুদ্ধের পর রামের কাছে পরাজিত হন অশুভের প্রতীক রাবণ। বইয়ের পাতার এই লঙ্কাকাণ্ড শব্দটি এখন ধুন্ধুমার কোনো ঘটনা বোঝাতে ব্যবহার করা হয়। যেমনটি হলো তাইওয়ানে। দেশটিতে লঙ্কা নিয়ে বলতে গেলে একপ্রকার লঙ্কাকাণ্ডই হলো। 

ঘটনা গতকাল রোববারের। দেশটির তাইপাই শহরে লঙ্কা নিয়ে বাড়াবাড়ির জের ধরে এক বাবাকে খেতে হলো গণধোলাই, সঙ্গে লঙ্কাও। কিন্তু কেন এই লঙ্কাকাণ্ড-জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম তাইওয়ান নিউজ। 

সংবাদমাধ্যমটির খবরে বলা হয়, গত শনিবার সন্ধ্যায় লিন নামের মারধোরের শিকার ওই ব্যাক্তি (৪২) তার ১২ বছরের ছেলেকে ঝাল মিটবল (মাংসের কোপ্তা) কিনে আনতে বলেন। মিটবল আনার পর দেখা যায় সেগুলো ঝাল না। এর জের ধরে ছেলেকে মারধর করেন লিন। এসময় থামাতে এগিয়ে গেলে তার স্ত্রী লি'কেও মারধর করেন তিনি। 

পুরো ঘটনাটি মোবাইলে ধারণ করেন লি। পরে ছেলেকে নিয়ে আহত অবস্থায় হাসপাতালে যান তিনি। এদিকে লি'র ফোনে ধারণ করা ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমগুলোতে ছড়িয়ে পড়ে। স্ত্রী-সন্তানের ওপর মদ্যপ লিনের এমন নির্যাতন দেখে রাগে ফেটে পড়েন নেটিজেনরা। 


এরপর রোববার সন্ধ্যা ৬টার দিকে লিনের বাড়িতে যান ছয়জনের একটি দল। তবে নিরাপত্তারক্ষীদের বাধার মুখে ফিরে আসেন তারা। পরে ৭টার দিকে সাতজন লিনের বাড়িতে ঢুকতে সক্ষম হন। লিন দরজা খোলার সঙ্গে সঙ্গে তার মুখে গুজে দেওয়া হয় শুকনা মরিচ। তারপর এলোপাথাড়ি চড়-থাপ্পড়। শেষমেশ পুলিশ গিয়ে রক্ষা করে লিনকে। এ সময় ওই সাতজনকেও আটক করা হয়। 

ঘটনা এখানেই শেষ নয়। আহত লিনকে নেওয়া হয় হাসপাতালে। কিন্তু দেখা যায় সেখানেও একদল লোক তাকে একহাত নেওয়ার জন্য উপস্থিত। তবে লিনও নাছোড়বান্দা। স্ত্রী-ছেলেকে মারধরের জন্য ক্ষমা চাইতে একেবারেই নারাজ তিনি। এমনকি দাম্ভিকতার জের ধরে এক নারী সাংবাদিককেও হুমকি দেন লিন।          

ঘড়িতে তখন রাত ১১টা। লিনের বাড়ির চারপাশ লোকে লোকারণ্য। কেউ ছবি তুলে ফেসবুক-টুইটারে পোস্ট করছেন। কেউ ফেসবুকে লাইভে যাচ্ছেন। একদল আবার লিনকে খাওয়ানোর জন্য রান্না করছেন পাতিলভর্তি মরিচ। 

পরিস্থিতি সামলাতে আবার হাজির হতে হয় পুলিশকে। পুলিশ আসার পর জনতা ঠাণ্ডা হয়। তবে লিনের পক্ষে পুলিশ ওই মরিচ রান্না উপস্থিত লোকজনের কাছ থেকে গ্রহণ করার পরই। 

About

Popular Links