Saturday, May 18, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

এবারের নোবেল শান্তি পুরস্কার বিশ্বের সব সাংবাদিকের

বাকস্বাধীনতার স্বরূপ জনগণের চাওয়া-পাওয়া সাংবাদিকদের লেখনীর দ্বারাই সমাজে প্রকাশিত ও রাষ্ট্রের দৃষ্টিতে আসে

আপডেট : ১০ অক্টোবর ২০২১, ০৮:১৫ পিএম

নরওয়ের নোবেল কমিটি ২০২১ সালে শান্তিতে নোবেল পুরস্কারের জন্য ফিলিপাইনের মারিয়া রেসা ও রাশিয়ার দিমিত্রি মুরাতভ কে নির্বাচিত করেছে৷ নোবেল কমিটির পক্ষ থেকে তাদের ওয়েবসাইটে বলা হয়, “মতপ্রকাশের স্বাধীনতাকে অক্ষত রাখতে তাদের নিরলস প্রচেষ্টা, যা গনতন্ত্র ও শান্তির পূর্বশর্ত, তাতে অবদানের জন্য তাদের এই পুরস্কারে ভূষিত করা হলো।”

নোবেল কমিটির মতে, “মতপ্রকাশের স্বাধীনতা ও তথ্যপ্রাপ্তির স্বাধীনতা গণতন্ত্রের অন্যতম প্রধান শর্ত, যা কিনা যুদ্ধ ও সংঘাত থেকে ও আমাদের রক্ষা করে। এবারের নোবেল ব্যাক্তিত্ত্বরা সারাবিশ্বে ছড়িয়ে থাকা সেসকল সাংবাদিকদের প্রতিনিধি যারা জীবন বাজি রেখে এই আদর্শ অনুসরণ করে চলেছেন।”

মারিয়া রেসা ২০১২ সালে সহপ্রতিষ্ঠাতা হিসেবে “রেপলার” নামের ডিজিটাল মিডিয়া কোম্পানি প্রতিষ্ঠা করেন, যার মাধ্যমে ফিলিপাইনে অনুসন্ধানী প্রতিবেদন চর্চা শুরু করেন তিনি। দুতার্তে সরকারের বিতর্কিত মাদক নিয়ন্ত্রণ ক্যাম্পেইন নিয়ে তিনি সবসময় তার সুতীক্ষ্ম দৃষ্টি রেখেছেন কেননা এই ক্যাম্পেইনে মৃত্যুর সংখ্যা এতই ছড়াচ্ছে যে বিশ্বে এই ক্যাম্পেইন যথেষ্ট নিন্দা কুড়িয়েছে এ যাবত।

বর্তমান রাশিয়ায় প্রথম সারির নিরপেক্ষ পত্রিকাগুলোর মধ্যে অগ্রপথিক “নোভাজা গেজেটা” যার সহ-প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন দিমিত্রি মুরাতভ। রাশিয়ায় ক্রমবর্ধমান চ্যালেঞ্জকে সামনে রেখেও তিনি তার দায়িত্ব নিষ্ঠার সাথে পালন করে যাচ্ছেন।”

মতপ্রকাশের পূর্ণ স্বাধীনতা ব্যতীত রাষ্ট্রের সার্বিক উন্নয়ন ও নাগরিক অধিকার প্রতিষ্ঠা সম্ভব নয়। বাকস্বাধীনতার স্বরূপ জনগণের চাওয়া-পাওয়া সাংবাদিকদের লেখনীর দ্বারাই সমাজে প্রকাশিত ও রাষ্ট্রের দৃষ্টিতে আসে। এবারের নোবেল শান্তি পুরস্কার বিজয়ীরা যেনো আলফ্রেড নোবেলের মহৎ আকাঙ্খার ই বাস্তবায়ন দেখাল।

আসিফ আলম, চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়

প্রকাশিত মতামত লেখকের একান্তই নিজস্ব। প্রকাশিত লেখার জন্য ঢাকা ট্রিবিউন কোনো ধরনের দায় নেবে না।

About

Popular Links