Saturday, June 15, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

আসছে ঝিঁঝি পোকা দিয়ে তৈরি পিৎজা

পিৎজ্জার টপিং হিসেবে দেওয়া হবে ঝিঁঝি পোকার ময়দা

আপডেট : ০৮ জুন ২০২৪, ০৮:৪৭ পিএম

পরিবেশের ওপর মাংসের কুপ্রভাব ও বেড়ে চলা জনসংখ্যার প্রোটিনের চাহিদার সমাধানসূত্র হিসেবে পোকার কদর বেড়ে চলেছে। তারই ধারাবাহিকতায় এবার ইতালিতে পিৎজ্জার টপিং হিসেবে ঝিঁঝি পোকার ময়দা ব্যবহারের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

আর এই উদ্দেশ্যে দেশটির একটি খামারে ঝিঁঝি পোকা পালন করা হচ্ছে। জোসে চানি নামের এক ব্যক্তি এই খামারটি পরিচালনা করছেন। আর এই পোকার ময়দা থেকে পিৎজা বানাচ্ছেন কার্লো দেল বুয়োনো নামের আরেক ব্যক্তি।

কারো কাছে বিষয়টা হাস্যকর মনে হলেও কার্লো দেল বুয়োনো ও জোসে চানির মতে, এই ব্যবসার ভবিষ্যৎ বেশ উজ্জ্বল।

ইতিলির কেন্দ্রভাগে মন্টেকাসিয়ানোয় এক পুরানো গুদামে নিউট্রিইনসেক্ট নামের স্টার্টআপ কোম্পানি খুলেছেন চানি।

জার্মানি থেকে ১০,০০০ ঝিঁঝি পোকা আমদানির মাধ্যমে তাদের এই অ্যাডভেঞ্চার শুরু হয়। সেটাই ছিল বিদেশ থেকে প্রথম এবং শেষ আমদানি তখন। তখন থেকেই চলছে ঝিঁঝি পোকা ব্রিডিং প্রক্রিয়া এবং ময়দা উৎপাদন।

জোসে চানি বলেন, “দশ হাজার পোকা দিয়ে আমরা এক কেজি ময়দা তৈরি করব। যার মধ্যে প্রায় ৬০%। প্রতি ঝিঁঝি পোকার ময়দার জন্য মাত্র পাঁচ লিটার পানির প্রয়োজন হয়। মনে রাখতে হবে, এক কেজি গরুর মাংসের জন্য পনেরো হাজার লিটার পানি লাগে।”

জোসের মতে, এভাবে জলবায়ু পরিবর্তনের বিরুদ্ধেও সংগ্রাম চালানো হচ্ছে। তিনি মাসে দুই টন ঝিঁঝি পোকার ময়দা উৎপাদন করেন।

এ বছরের শুরুতেই ইতিলি মানুষের খাদ্য হিসেবে ঝিঁঝিপোকার ব্যবহারের অনুমোদন দিয়েছে। আর তারপর থেকে চানির খামারে বেড়ে গেছে অর্ডার।

তিনি জানান, এই পোকার আয়ু ৩০ দিনের মতো। তাদের খামারে এই পোকার ঘুমিয়ে পড়া ও মারা যাওয়া পর্যন্ত এক রেফ্রিজরাটর যন্ত্রে তাপমাত্রা ধীরে ধীরে কমানো হয়। ব্যবসায়ী হিসেবে চানির দাবি, এর ফলে পোকাগুলো বিনা যন্ত্রণায় মারা যায়। এরপর সেই পোকা গুঁড়া করে ময়দায় রূপান্তরিত করা হয়।

এদিকে, ওই ময়দা থেকে কার্লো দেল বুয়োনো পিৎজা তৈরির পরীক্ষানিরীক্ষা করছেন। প্রচলিত পিৎজ্জার মণ্ডে সর্বোচ্চ ১৫% ঝিঁঝি পোকার ময়দা যোগ করা উচিত বলে তিনি মনে করেন।

কার্লো বলেন, “প্রচলিত ডো-এর সঙ্গে ভালোভাবে যাতে মেশে, তার জন্য আমরা আপ্রাণ চেষ্টা করছি। আমরা সবজি ও একটু মোৎসারেলা চিজ দিয়ে একটা পিৎজ্জা তৈরি করছি।”

তবে ঝিঁঝি পোকার ময়দা বেশি দামি হওয়ায় বৃহৎ পরিসরে এর ব্যবহার শুরু হতে আরও সময় লেগে যাবে বলে জানান তিনি।

About

Popular Links